,

image-512610-1642998700

দীঘির কাছে ভোট চাইলেন তার বাবা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্প সমিতির নির্বাচনের বাকি মাত্র আর চার দিন। দুই প্যানেলের সদস্যরা নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন ব্যাপক আকারে।

নির্বাচনী আমেজে মুখর গোটা এফডিসি। চারিদিক থেকে একটাই অনুরোধ  – ভোট চাই।

একটি ভোট যেন সোনার হরিণ। আর কথা বেশ জানেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেলের সহ-সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী অভিনেতা সুব্রত।

নিজের মেয়ে প্রার্থনা ফারদিন দীঘির কাছে ভোট চাইলেন তিনি। রোববার বিকালে এফডিসিতে সাংবাদিকদের সামনেই দীঘির কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোট চান তার বাবা সুব্রত।

উল্লেখ্য, গত বছর ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমার মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হয় দীঘির।  যদিও এর আগে দেড় ডজন সিনেমায় অভিনয় করেছেন।  আর সে সবই শিশুশিল্পী হিসেবে।  যে কারণে এতদিন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য ছিলেন না তিনি। এবারই সংগঠনটির সদস্য হয়েছেন। এবারই প্রথম ভোট দেবেন এই তরুণ নায়িকা।

প্রথমবারের মতো ভোটার হওয়া মেয়ে দীঘিকে রোববার সুব্রত বলেন, ‘প্রার্থনা ফারদিন দীঘি, তুমি এবার প্রথম ভোটার হয়েছো। তুমি জানো যে সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে সুব্রত নামের শিল্পী দাঁড়িয়েছে। তিনি তোমার কী হয়, তা জানার দরকার নেই। তুমি এবার প্রথম ভোটার হিসেবে সুব্রতকে তোমার ভোট প্রদান করবে। এটাই আমি মনেপ্রাণে কামনা করি।’

বাবার এমন ভোট চাওয়া নিয়ে দীঘি বলেন, ‘বাবাকে আমি কখনও নির্বাচনে হারতে দেখিনি। তিনি সবসময় তার কর্মগুণে জয়ী হয়েছেন। আমি মনে করি আমার ভোট চাওয়ার জন্য বাবা জিতে যায় এমনটা নয়। তিনি সকলের পছন্দের মানুষ। তাকে আপন মনে করে প্রতিবার সবাই ভোট দেয়।’

প্রসঙ্গত, শিশুশিল্পী হিসেবে ঢাকাই সিনেমায় পা রাখা দীঘির নায়িকা হিসেবে প্রথম সিনেমা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’। যা গতবছর মুক্তি পায়। চলতি বছরের ২ এপ্রিল মুক্তি পেয়েছে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সেলিম খান। বর্তমানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের চরিত্রের অভিনয় করেছেন দীঘি। সব মিলিয়ে হালের ব্যস্ততম নায়িকা দীঘি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর