,

Untitled-130

জানা গেলো নীল চোখের জনপ্রিয় এই খুদের পরিচয়

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ইরানের নাগরিক অনাহিতার হাশেমজাদেহ জন্ম ২০১৬ সালের ১০ জানুয়ারি। নেটমাধ্যমের অত্যন্ত পরিচিত মুখ। নীল চোখের এই খুদের ছবি-ভিডিও নেটমাধ্যমে দেয়া মাত্রই তা ভাইরাল হয়ে যায়। কে এই খুদে? কীভাবে সে ভিডিও করে? এবং তা এতো জনপ্রিয়ই বা হয়ে ওঠে কেনো? তার পরিবার মধ্য ইরানের বাসিন্দা। ইরানের শহর ইস্পাহানে বেড়ে উঠেছে অনাহিতা। অনাহিতার বয়স এখন পাঁচ বছর। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার। তিন বছর বয়স থেকেই নেটমাধ্যমের পরিচিত মুখ হয়ে ওঠে সে। ইনস্টাগ্রামে তার অনুগামীর সংখ্যা এক লক্ষ ৭৯ হাজার। এখন পর্যন্ত অন্তত ৮৭৬টি ছবি-ভিডিও পোস্ট করে ফেলেছে সে।

অনাহিতার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে খুব বেশি জানা যায় না। ইনস্টাগ্রামে তার মা-বাবার ছবিও খুব বেশি নেই। তবে তার ইনস্টা-অ্যাকাউন্ট পুরোটাই দেখভাল করেন তার মা। খবরে বলা হয়, ২০১৮ সালের জুন মাসে অনাহিতার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বানানো হয়েছিল। তারপর থেকেই তা ক্রমশ জনপ্রিয়তার শিখরে চড়তে শুরু করে। অনাহিতার ইনস্টা-অনুগামীর সংখ্যা যখন ৭০ হাজার, তার ইনস্টা-অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে গিয়েছিল। ফলে সেই অ্যাকাউন্ট সম্পূর্ণ মুছে ফেলে পুনরায় তা বানাতে হয়। অনাহিতার মা ফের তার নামে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে দিয়েছিলেন। অনাহিতার যে সমস্ত ছবি নেটমাধ্যমে পোস্ট করা হয় তা সবই পেশাদার চিত্রগ্রাহকেরা তুলে থাকেন। ইনস্টাগ্রামে অনাহিতার পরিচয় ‘বেবি মডেল’ হিসেবে। বিভিন্ন ধরনের পোশাক পরে, বিভিন্ন গানের সঙ্গে নেচেই জনপ্রিয় অনাহিতা। তার মিষ্টতা মন ভরিয়ে দেয় অনুগামীদের।

নীল চোখ, বাদামি চুল আর গালে টোল। অনাহিতাকে অনেকেই বলিউডের প্রীতি জিন্টার সঙ্গে তুলনা করে থাকেন। ছেলেবেলায় নাকি অনাহিতার মতোই দেখতে ছিল প্রীতি জিন্টাকে এমনটাই মনে করেন অনেক অনুগামী। লাদাখের সংসদ সদস্য জেমিয়াং শেরিং নামগিয়াল সম্প্রতি তার ভিডিও নেটমাধ্যমে অনুগামীদের সঙ্গে ভাগ করে নিয়ে লেখেন, ‘নেটমাধ্যমে চোখে পড়া সবচেয়ে মিষ্টি এটিই।’ ওই ভিডিওতে একটি তামিল গানে ঠোঁট মিলিয়েছিল আনাহিতা। সেটিও চূড়ান্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল।
Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর