,

1632472610_thumbnail-(1)

বিয়ের কার্ড ছাপার পরে বিয়ে ভেঙে যায় সালমান-সঙ্গীতার!

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বলিউডের ভাইজান সালমান খানের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে আগ্রহ এবং উত্তেজনার শেষ নেই। বিশেষত তার বিবাহ অভিযান সম্পর্কে নানান সময় ভিন্ন মানুষের সঙ্গে গুজব ছড়িয়েছে সর্বত্রই। অভিনেত্রী সঙ্গীতা বিজলানির সঙ্গে তার বহু আলোচিত সম্পর্কের কথা অনেকেই জানেন। কিন্তু সেই সম্পর্কের পরিণতি প্রসঙ্গ এখনও অধরা। এমন অবস্থায় জানা গেল তাদের বিয়ের কার্ডও নাকি ছাপা হয়ে গিয়েছিল।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সঙ্গীতা বলেছেন, ““প্রেমের সম্পর্কে যবনিকা টেনেছে ঠিকই কিন্তু তারা এখনও সমানতালে বন্ধু। এই সম্পর্ক কখনই ভাঙতে পারেনা। এত বছর ধরেই বন্ধুত্বের সেই প্রতিশ্রুতি এখনও পালন করে চলেছেন দুজনেই। জীবনে চলার পথে অনেক মানুষ আসবে যাবে কিন্তু তার মানে এই নয় তাদের প্রতি রাগ এবং তিক্ত অনুভূতি সারাজীবনের জন্য বহাল থাকবে। ছোট বয়সের ভুল এবং শিশুসুলভ আচরণ অনেক কিছু শিখিয়েছে। তাই এখন জীবন অভিজ্ঞতা সম্পন্ন।”

একবার ‘কফি উইথ করণ’-এ সঙ্গীতার সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছিলেন সালমান। বলেছিলেন, “জীবনের একটা সময়ে আমি বিয়ে করতে চাইতাম। কিন্তু হয়ে ওঠেনি। আমি প্রেমিকাদের কাছাকাছি চলে যেতাম। ওদের পা ঠান্ডা হয়ে যেত। আমি ভাল প্রেমিক, একথা সকলেই স্বীকার করত। কিন্তু আমাকে সারাজীবন সহ্য করতে চায়নি কেউই। আমার আর সঙ্গীতার সম্পর্কের কথাই ধরা যেতে পারে। আমাদের তো বিয়ের কার্ডও ছাপা হয়ে গিয়েছিল।”

সালমানকে নাকি অন্য কারো সঙ্গে সম্পর্কে থাকা নিয়ে হাতেনাতে ধরেছিলেন সঙ্গীতা। বিষয়টি নিয়ে করণ খোলাখুলি জিজ্ঞেসও করেছিলেন ভাইজানকে। তিনি বলেন, “হ্যাঁ, ওরকমই বলতে পারেন। আমি তো বোকা ছিলাম। ধরা পড়ে গিয়েছিলাম।” তারপরই কথা ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন সালমান।

প্রসঙ্গত, সালমানের বৈবাহিক জীবন নিয়ে পরিবারের সকলেই একরকম ক্লান্ত। কোনোভাবেই কিছু করা যায়নি বলেই ভাই আরবাজ থেকে বোন অর্পিতা সকলের অভিযোগ। আর এদিকে সঙ্গীতা বিয়ে করেন, ভারতীয় ক্রিকেটের প্রাক্তন অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিন কে। তার পরেই একরকম দাঁড়ি টেনে দেন নিজের সিনে ক্যারিয়ারে। তবে দুজনের বন্ধুত্ব এখনও বিদ্যমান।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর