,

পুনরায় বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্যাম বেনেগালের বায়োপিক ‘মুজিব : দ্য মেকিং অফ আ নেশন’ এর কিছু কিছু জায়গায় পুনরায় শুটিং করা হচ্ছে। ভিজুয়াল ইফেক্টস সম্পাদনায়ও নতুন একটি প্রতিষ্ঠান যুক্ত হয়েছে। যে প্রতিষ্ঠান এর আগে ভারতের বহুল আলোচিত সিনেমা ‘বাহুবলী’র সম্পাদনা করেছে। সিনেমাটির সহকারী নির্মাতা ও কাস্টিং ডিরেক্টর বাহাউদ্দিন খেলন জানিয়েছেন, বায়োগ্রাফির ট্রেইলর প্রকাশের পর অনেক ভুল-ত্রুটি ধরা পড়ে। আমরা সেটা বিশ্লেষণ করে দেখেছি, বিজ্ঞ সমালোচকরা যে বিষয়গুলো তুলে ধরেছেন তার অনেক কিছুই ঠিক এবং আমাদের ঐ বিষয়গুলো নিয়ে আরও সতর্ক হওয়া উচিত। তিনি বলেন,

সিনেমাটিতে ভিএফক্সের দুর্বলতাই হচ্ছে সমালোচনার মূল জায়গা। তাই আগে যে ভিএফএক্স কোম্পানি ছিল, তাদের সঙ্গে ভারতের সবচেয়ে নামী ভিএফএক্স কোম্পানিকে যুক্ত করেছি। যারা এর আগে ‘বাহুবলী’ সিনেমার ভিএফএক্স করেছে। এখন দুই কোম্পানি মিলে যৌথভাবে ভিএফএক্সের কাজ করছে। তিনি বলেন, ভিএফএক্সের কাজ শেষ হয়ে গেলে বায়োপিকটিতে আর কোনো দুর্বলতা থাকবে না। মুক্তির পর এটি বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হবে। উল্লেখ্য, কান চলচ্চিত্র উৎসবের বাণিজ্যিক শাখা মার্শে দ্যু ফিল্মের অংশ হিসেবে ভারতীয় প্যাভিলিয়নে গত ১৯ মে মুজিব : দ্য মেকিং অফ আ নেশন-এর ট্রেইলর প্রকাশিত হয়। তারপর থেকেই সমালোচনা শুরু হয়। ট্রেলইরে বঙ্গবন্ধুকে দেখে হতাশ হয়েছেন অনেকেই। প্রশ্ন ওঠে এ কোন বঙ্গবন্ধুকে দেখালেন ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল! ট্রেলইারে ভিজুয়াল ইফেক্টস, বঙ্গবন্ধুর মেকআপ-

গেটআপ ইত্যাদি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে। যার প্রেক্ষিতে, নতুন করে ভিএফএক্সের দিকে মনোযোগ দেয় কর্তৃপক্ষ। শুধু ভিএফএক্সেই নয়, সিনেমাটির বিভিন্ন দৃশ্য পুনরায় শুটিং করা হবে বলে জানানো হয়। এদিকে, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, এ বছরই বায়োপিকটি মুক্তি পাবে। তার আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখবেন এবং তিনি চূড়ান্ত অনুমতি দিলে মুক্তি পাবে। সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র শ্রী অরিন্দম বাগচি জানিয়েছেন, বায়োপিকটি আগামী ডিসেম্বরে মুক্তি পেতে পারে। বাগচি বলেন, আমি মনে করি, স্যাম বেনেগাল এবং তার দল সিনেমাটির শুটিং, সম্পাদনা এবং কম্পিউটার গ্রাফিক্স প্রায় শেষ করে ফেলেছেন। বছরের শেষের দিকে সিনেমাটি মুক্তি পাবে বলে আশা করি। উল্লেখ্য, বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেতা আরিফিন শুভ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চরিত্রে নুসরাত ফারিয়া। এছাড়া তাজউদ্দীন আহমদের চরিত্রে ফেরদৌস আহমেদ এবং বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের চরিত্রে নুসরাত ইমরোজ তিশা অভিনয় করছেন। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন খায়রুল আলম সবুজ, দিলারা জামান, সায়েম সামাদ, শহীদুল আলম সাচ্চু, প্রার্থনা ফারদিন দীঘি, রাইসুল ইসলাম আসাদ, গাজী রাকায়েত, তৌকীর আহমেদ, সিয়াম আহমেদ, মিশা সওদাগর, এলিনা শাম্মী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর