সাংবাদিকদের খোঁজ নিলেন প্রেসিডেন্ট

বিকাল ৪টা ২৮ মিনিট। সংসদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সার্জেন্ট অ্যাট আর্মস এসে জানালেন ‘মহামান্য’ আসছেন আপনাদের লাউঞ্জে। এতে কেউ অবাক না হলেও সতর্ক হলেন সবাই। আগে থেকে না জানলেও অনেকটা যেন প্রত্যাশিতই মনে হচ্ছিল সবার কাছে। ধারণাটা এমন, বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ অ্যাডভোকেট তো আসবেনই সাংবাদিক লাউঞ্জে। তাই ন্যূনতম কোন প্রটোকল বা আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই চলে আসেন সাংবাদিকদের কাছে। সংসদ ভবনের ছয় তলার সাংবাদিক লাউঞ্জে একান্ত আলাপচারিতায় মাতলেন কয়েক মিনিট। এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বাজেট বক্তৃতা চলছিল। প্রেসিডেন্ট ব্যক্তিগতভাবে খোঁজখবর নেন সাংবাদিকদের। জানতে চান কেমন চলছে? কোন সমস্যা রয়েছে কিনা? লাউঞ্জের এসি কাজ করছে কিনা, তাও খোঁজ নেন প্রেসিডেন্ট। ৭ মিনিটের মতো অবস্থান শেষে বিকাল ৪টা ৩৫ মিনিটে সাংবাদিক লাউঞ্জ ত্যাগ করেন তিনি। এর আগে চলতি দশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের প্রথম দিন ২৯শে জানুয়ারি এবং গত বছর ৫ই জুন অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তব্য চলাকালেও রাত আটটা ৩৪ মিনিটে প্রেসিডেন্ট সংসদের সাংবাদিক লাউঞ্জে এসে খোঁজখবর নেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর