,

file_5bbd7e80d7808

প্রথমবার ‘আই লাভ ইউ’ গানটি স্টেজে গাইব

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সর্বশেষ ২০০৯ সালে ‘কাল যমুনা’ নামে একটি অ্যালবাম প্রকাশ করেছিলেন নগরবাউল ব্যান্ডের প্রধান মাহফুজ আনাম জেমস। এরপর সিনেমার গানে তাকে পাওয়া গেলেও অডিওতে ছিলেন নিষ্ক্রিয়। দীর্ঘ এক যুগ পর আবারও ‘আই লাভ ইউ’ শিরোনামে একটি নতুন গান নিয়ে ভক্ত-শ্রোতাদের সামনে এলেন তিনি। এরই মধ্যে ঈদের আগের দিন এটি প্রকাশও হয়েছে। প্রকাশের পর গানটি নিয়ে শ্রোতাদের মধ্যে পক্ষে-বিপক্ষে নানা প্রতিক্রিয়াও লক্ষ করা যাচ্ছে। নতুন গান ও আগামীর পরিকল্পনা নিয়ে আজকের ‘হ্যালো.’ বিভাগে কথা বলেছেন এ সংগীতশিল্পী

ঈদের শুভেচ্ছা। কেমন আছেন?

ঈদ মোবারক আমার সব শ্রোতা, দর্শক ও বন্ধুদের। ভালো আছি, বেশ আছি।

১২ বছর পর ‘আই লাভ ইউ’ নিয়ে ফিরলেন। কেমন ভালোবাসা পাচ্ছেন?

এখন তো সবই দেখা যায়। ভিউ গোনা যায়। ভালোবাসা হয় তো পরিমাপ করা যায় না। কিন্তু ‘আই লাভ ইউ’র ভালোবাসা কিংবা দর্শক সাড়া তো বেশ দেখছি।

নতুন গান প্রকাশের চেয়ে তাক লাগানো বিষয় ছিল মিডিয়ার সামনে আপনার হঠাৎ উপস্থিত। সাংবাদিকের প্রশ্নেও বেশ সপ্রতিভ ছিলেন.

আসলে অনেক দিন ধরে ভক্তরা বলছেন নতুন গান চাই। সে জন্য গান তৈরি করা। এ জন্যই মিডিয়াতে আসা। এর মধ্যে দীর্ঘদিনই তো করোনায় কেটে গেল। এটিও একটি বিষয় ছিল।

গান প্রকাশের দীর্ঘসূত্রিতার কারণ কী ছিল?

আমার বন্ধুদের ভালো কিছু দেওয়ার অপেক্ষায় ছিলাম।

গানের ভিডিওর শেষে একটি লেখা ছিল- পরবর্তী গানের জন্য অপেক্ষায় থাকুন। কবে নাগাদ আসছে পরবর্তী গান?

যে প্ল্যাটফরম থেকে ‘আই লাভ ইউ’ প্রকাশ হয়েছে তাদের সঙ্গে পাঁচটি গানের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। এর মধ্যে একটি গান প্রকাশ হলো। আরও চারটি বাকি। সে জন্যই এটি লেখা। তা ছাড়া আরও নতুন গান ধারাবহিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

নতুন চারটি গানের কথা ও সুর নিশ্চয়ই আপনারই হবে? প্রস্তুতি চলছে। আশা করা যায় আমারই করা থাকবে।

নতুন গান প্রকাশের পর একটি বিষয় আলোচনা হচ্ছে, জেমসের কণ্ঠ নিয়ে। নব্বই দশকের গলাটাই শুনছেন সবাই!

হয়তো এটিই বলতে চাইছেন যে, অনেকেই একটা সময় এসে গলা কন্ট্রোল করতে পারে না? কণ্ঠ বা সংগীতচর্চা বিষয়। আমি গানের মানুষ, গান নিয়ে ছিলাম, আছি, থাকব। হয়তো সে জন্যই কণ্ঠকে কন্ট্রোল করা। আরেকটি বিষয় হচ্ছে, আমি তো আমার বন্ধুদের নিয়ে ছিলাম। স্টেজে, কনসার্টে। তাদের কাছে সে বিষয়টি হয়তো আগের মতোই মনে ধরেছে।

আপনার গানের ভিডিও তথাকথিত ভিডিওর মতো নয়। ডিরেকশনটাও বেশ চোখে পড়ার মতো। কীভাবে তা সম্ভব হয়েছে?

প্রথম কথা হচ্ছে নিজের কাছে নিজের কাজটা সুন্দর হওয়া চাই। আর কাজ সুন্দর করতে যত্নবান হতে হয়। খুব যত্ন নিয়ে কাজ অবশ্যই ভালো ফল দেয়। আমি ভিডিওর পরিকল্পনা ও নির্দেশনার ক্ষেত্রে মনোযোগী ও যত্নবান ছিলাম। আমার অতীতের গানের কিছু বিষয় ভিডিওতে রেখেছি। নিজের কাছেও ভালো লেগেছে।

গান নিয়ে পরবর্তী পরিকল্পনা কী?

সবে তো একটি প্রকাশ হলো। আরও কাজ চলছে। ৮ মে একটি চমক আছে গাইবান্ধায়। সেখানে আয়োজিত একটি কনসার্টে প্রথমবার ‘আই লাভ ইউ’ গানটি স্টেজে গাইব।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর