ঢাকা ০২:১৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
মহাসত্যের সন্ধানে সালমান ফারসি (রা.) ইসরাইলে মুখোমুখি সেনা ও সরকার, বিপাকে নেতানিয়াহু বন্যায় নেত্রকোণার মদনে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত পানিবন্ধি ১ হাজার ছয়শ বিশ পরিবার মদনে প্রধান সড়ক দখল করে বাসস্ট্যান্ড, দীর্ঘ যানজটে ভোগান্তির যেনো শেষ নেই মদনে কৃষক আজিজুল ইসলামের বজ্রপাতে মৃত্য জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি আপেল মাহমুদ ও সহ-সাধারণ সম্পাদক রাহাত মদনে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ করেন ইউএনও প্রধানমন্ত্রীকে ঈদের শুভেচ্ছা নরেন্দ্র মো‌দির দুর্ভাগ্য আমাদের, ভালো খেলেও কোয়াটার ফাইনালে যেতে পারলাম না জাতীয় ঈদগাহে ঈদের নামাজ আদায় করবেন রাষ্ট্রপতি

৫৬ মামলা তদন্তে দায়িত্ব বণ্টন

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৮:০০:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৫
  • ৩১৪ বার

বেসিক ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের ৫৬ মামলা তদন্তের দায়িত্ব বণ্টন করা হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মঙ্গলবার ৬ কর্মকর্তাকে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ সংক্রান্ত চিঠি দেয়া হয়েছে। এরা হলেন- উপপরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মোহাম্মদ মোরশেদ আলম, ঋত্বিক সাহা, সহকারী পরিচালক মো. সামছুল আলম, উপসহকারী পরিচালক একেএম ফজলে হোসেন ও মুহাম্মদ জয়নুল আবেদীন।
এর মধ্যে উপপরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিমকে দেয়া হয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- ইউ কে বাংলা ট্রেডিং, আর কে ফুড লি., ভয়েস এন্টারপ্রাইজ, এমারেল্ড স্পেশালাইজড কোল্ডস্টোরেজ লি., এমারেল্ড অটো ব্রিকস লি., মেসার্স আলী ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, টেলিওয়েজ ইন্টারন্যাশনাল লি., এলআর ট্রেডিং, এমারেল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ ও রিলায়েন্স শিপিং।
উপপরিচালক ঋত্বিক সাহাকে দেয়া হয়েছে ৭ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- ফারসি ইন্টারন্যাশনাল, আজাদ ট্রেডিং, তানজিনা ফ্যাশন, লাইফ স্টাইল ফ্যাশন্স মেকার লি., সুরমা স্টিল অ্যান্ড স্টিল ট্রেডিং কোং, মেসার্স ফাস্ট অ্যান্ড বেস্ট ইমপেক্স এবং এআরএসএস।
উপপরিচালক মোহাম্মদ মোরশেদ আলমকে দেয়া হয়েছে ১১ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- মেসার্স বি. আলম শিপিং লাইন, আমিরা শিপিং এজেন্সি, সৈয়দ ট্রেডার্স, আরআই এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স বিথী এন্টারপ্রাইজ, ফিয়াজ এন্টারপ্রাইজ, নিউ অটো ডিফাইন, প্রোপেল ইন্টারন্যাশনাল, নাহার গার্ডেন (প্রা.) লি., মেসার্স সিমেক্স লি. এবং মেসার্স পারুমা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস।
উপপরিচালক ঋত্বিক সাহাকে দেয়া হয়েছে ৭ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- ফাস্ট অ্যান্ড বেস্ট ইমপেক্স, এআরএসএস, মেসার্স আজাদ ট্রেডিং, মেসার্স তানজিনা ফ্যাশন, লাইফ স্টাইল ফ্যাশন্স মেকার লি., মেসার্স সুরমা স্টিল অ্যান্ড স্টিল ট্রেডিং এবং মেসার্স ফারসি এন্টারপ্রাইজ।
সহকারী পরিচালক মো. সামছুল আলমকে দেয়া হয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- মেসার্স এসএফজি শিপিং লাইন লি., লিটল ওয়ার্ল্ড লি., মনিকা ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল, ট্রেড হাউজ লি., তাহমিনা ডেনিম, তাহমিনা নিটওয়্যার লি.. বাসাভি ফ্যাশন লি., খাদিজা অ্যান্ড সন্স, সৈয়দ কনস্ট্রাকশন লি. এবং সৈয়দ রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড ডেভেলপার্স। উপসহকারী পরিচালক একেএম ফজলে হোসেনকে দেয়া হয়েছে ৯ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হচ্ছে- মেসার্স হাসিব এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স হক টেডিং, এসওএস ব্রাদার্স, ডায়নামিক ট্রেডিং, রুদ্র স্পেশালাইজড কোল্ডস্টোরেজ লি., আহমেদ অয়েল মিলস লি., মেসার্স বষর্ণ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি., মেসার্স এমারেল্ড ড্রেসেস লি. এবং আজবিহা এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি.।
উপসহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে দেয়া হয়েছে ৯ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- ‘সিনটেক্স, এসএল ডিজাইনার্স লি., এশিয়ান ফুড ট্রেডিং, মেসার্স সিলভার কম ট্রেডিং, এশিয়ান শিপিং বিডি, মেসার্স বাশার এন্টারপ্রাইজ, গুঞ্জন এগ্রো এরোমেটিক অটো রাইস মিল, নীল সাগর এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি. (ফিড মিল ইউনিট) এবং নীল সাগর এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি. (ব্রিডিং অ্যান্ড হ্যাচারি ইউনিট)।
তদন্ত কার্যক্রম তদারক করবেন দুদক পরিচালক (বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্ত) মো. নূর আহম্মদ।
উল্লেখ্য, চলতি বছর ২১, ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর বেসিক ব্যাংক লোপাটের অভিযোগে ৫৬টি মামলা করে দুদক। মামলাগুলোতে সুদসহ ২৫শ’ ৯০ কোটি ৪৯ লাখ ৯১,৪৫৩ টাকা আÍসাতের অভিযোগ আনা হয়।
ব্যাংকটির সাবেক এমডি কাজী ফখরুল ইসলামসহ আসামি করা হয় ১২০ জনকে। আসামিদের মধ্যে ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ব্যাংক কর্মকর্তা রয়েছেন ২৭ জন। ঋণগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক রয়েছেন ৮২ জন। সার্ভেয়ার আসামি করা হয়েছে ১১ জনকে। তারা অধিকাংশই একাধিক মামলার অভিন্ন আসামি। তবে ৫৬ মামলার কোনোটিতেই মূল হোতা সাবেক শেখ আবদুল হাই বাচ্চুকে আসামি করা হয়নি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

মহাসত্যের সন্ধানে সালমান ফারসি (রা.)

৫৬ মামলা তদন্তে দায়িত্ব বণ্টন

আপডেট টাইম : ০৮:০০:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৫

বেসিক ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের ৫৬ মামলা তদন্তের দায়িত্ব বণ্টন করা হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মঙ্গলবার ৬ কর্মকর্তাকে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ সংক্রান্ত চিঠি দেয়া হয়েছে। এরা হলেন- উপপরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মোহাম্মদ মোরশেদ আলম, ঋত্বিক সাহা, সহকারী পরিচালক মো. সামছুল আলম, উপসহকারী পরিচালক একেএম ফজলে হোসেন ও মুহাম্মদ জয়নুল আবেদীন।
এর মধ্যে উপপরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিমকে দেয়া হয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- ইউ কে বাংলা ট্রেডিং, আর কে ফুড লি., ভয়েস এন্টারপ্রাইজ, এমারেল্ড স্পেশালাইজড কোল্ডস্টোরেজ লি., এমারেল্ড অটো ব্রিকস লি., মেসার্স আলী ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, টেলিওয়েজ ইন্টারন্যাশনাল লি., এলআর ট্রেডিং, এমারেল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ ও রিলায়েন্স শিপিং।
উপপরিচালক ঋত্বিক সাহাকে দেয়া হয়েছে ৭ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- ফারসি ইন্টারন্যাশনাল, আজাদ ট্রেডিং, তানজিনা ফ্যাশন, লাইফ স্টাইল ফ্যাশন্স মেকার লি., সুরমা স্টিল অ্যান্ড স্টিল ট্রেডিং কোং, মেসার্স ফাস্ট অ্যান্ড বেস্ট ইমপেক্স এবং এআরএসএস।
উপপরিচালক মোহাম্মদ মোরশেদ আলমকে দেয়া হয়েছে ১১ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- মেসার্স বি. আলম শিপিং লাইন, আমিরা শিপিং এজেন্সি, সৈয়দ ট্রেডার্স, আরআই এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স বিথী এন্টারপ্রাইজ, ফিয়াজ এন্টারপ্রাইজ, নিউ অটো ডিফাইন, প্রোপেল ইন্টারন্যাশনাল, নাহার গার্ডেন (প্রা.) লি., মেসার্স সিমেক্স লি. এবং মেসার্স পারুমা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস।
উপপরিচালক ঋত্বিক সাহাকে দেয়া হয়েছে ৭ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- ফাস্ট অ্যান্ড বেস্ট ইমপেক্স, এআরএসএস, মেসার্স আজাদ ট্রেডিং, মেসার্স তানজিনা ফ্যাশন, লাইফ স্টাইল ফ্যাশন্স মেকার লি., মেসার্স সুরমা স্টিল অ্যান্ড স্টিল ট্রেডিং এবং মেসার্স ফারসি এন্টারপ্রাইজ।
সহকারী পরিচালক মো. সামছুল আলমকে দেয়া হয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হল- মেসার্স এসএফজি শিপিং লাইন লি., লিটল ওয়ার্ল্ড লি., মনিকা ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল, ট্রেড হাউজ লি., তাহমিনা ডেনিম, তাহমিনা নিটওয়্যার লি.. বাসাভি ফ্যাশন লি., খাদিজা অ্যান্ড সন্স, সৈয়দ কনস্ট্রাকশন লি. এবং সৈয়দ রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড ডেভেলপার্স। উপসহকারী পরিচালক একেএম ফজলে হোসেনকে দেয়া হয়েছে ৯ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। এগুলো হচ্ছে- মেসার্স হাসিব এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স হক টেডিং, এসওএস ব্রাদার্স, ডায়নামিক ট্রেডিং, রুদ্র স্পেশালাইজড কোল্ডস্টোরেজ লি., আহমেদ অয়েল মিলস লি., মেসার্স বষর্ণ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি., মেসার্স এমারেল্ড ড্রেসেস লি. এবং আজবিহা এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি.।
উপসহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে দেয়া হয়েছে ৯ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা তদন্তের দায়িত্ব। প্রতিষ্ঠানগুলো হল- ‘সিনটেক্স, এসএল ডিজাইনার্স লি., এশিয়ান ফুড ট্রেডিং, মেসার্স সিলভার কম ট্রেডিং, এশিয়ান শিপিং বিডি, মেসার্স বাশার এন্টারপ্রাইজ, গুঞ্জন এগ্রো এরোমেটিক অটো রাইস মিল, নীল সাগর এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি. (ফিড মিল ইউনিট) এবং নীল সাগর এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি. (ব্রিডিং অ্যান্ড হ্যাচারি ইউনিট)।
তদন্ত কার্যক্রম তদারক করবেন দুদক পরিচালক (বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্ত) মো. নূর আহম্মদ।
উল্লেখ্য, চলতি বছর ২১, ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর বেসিক ব্যাংক লোপাটের অভিযোগে ৫৬টি মামলা করে দুদক। মামলাগুলোতে সুদসহ ২৫শ’ ৯০ কোটি ৪৯ লাখ ৯১,৪৫৩ টাকা আÍসাতের অভিযোগ আনা হয়।
ব্যাংকটির সাবেক এমডি কাজী ফখরুল ইসলামসহ আসামি করা হয় ১২০ জনকে। আসামিদের মধ্যে ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ব্যাংক কর্মকর্তা রয়েছেন ২৭ জন। ঋণগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক রয়েছেন ৮২ জন। সার্ভেয়ার আসামি করা হয়েছে ১১ জনকে। তারা অধিকাংশই একাধিক মামলার অভিন্ন আসামি। তবে ৫৬ মামলার কোনোটিতেই মূল হোতা সাবেক শেখ আবদুল হাই বাচ্চুকে আসামি করা হয়নি।