,

image-559194-1654490221

তীরে এসে তরী ডোবাল ইউক্রেন

হাওর বার্তা ডেস্কঃ যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনকে কাতার বিশ্বকাপে দেখতে উন্মুখ ছিলেন অনেকেই। স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপ খেলার আশা বাঁচিয়ে রেখেছিল দলটি। কিন্তু আরও একবার তীরে এসে তরী ডোবাল ইউক্রেন।

রোববার কার্ডিফে প্লেঅফ ফাইনালে ইউক্রেনকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের টিকিট কেটেছে ওয়েলস।

ফলে ৬৪ বছর পর বিশ্বকাপে খেলতে যাচ্ছে গ্যারেথ বেলের দেশ।

১৯৫৮ সালের সুইডেন বিশ্বকাপে প্রথম ও শেষবারের মতো খেলেছিল ওয়েলস। সেই আসরের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের কাছে হেরে কোয়ার্টার ফাইনালে থেমেছিল তাদের বিশ্বকাপ যাত্রা।

রোববার পুরো ম্যাচে ছড়ি ঘুরিয়েও অধিনায়কের আত্মঘাতী গোলে স্বপ্ন ভাঙল ইউক্রেনের।

ইউক্রেনকে হারিয়ে ওয়েলসের বিশ্বকাপ টিকিট পাওয়ার পেছনে বড় কৃতিত্ব গোলরক্ষক ওয়েন হেনেসি। পুরো ম্যাচে একের পর এক আক্রমণ করে গেছে ইউক্রেন, একবারের জন্যও টলেননি হেনেসি। ম্যাচে ৬৮ শতাংশ সময় বল নিয়ন্ত্রণে রেখে লক্ষ্য বরাবর ৯টি শট করেছিল ইউক্রেন, গোল পায়নি একটিও।

গোল না পেলেও ওয়েলসের জালে ঠিকই বল জড়িয়েছিল ইউক্রেন।

ম্যাচের তিন মিনিটের মাথায়ই ওয়েলসের জালে বল ঢুকিয়েছিলেন ওলেকজান্ডার জিনচেঙ্কো। কিন্তু প্রতিপক্ষ দলের সবাই তখন অপ্রস্তুত থাকায় রেফারি সেটিকে গোল হিসেবে বিবেচনা করেননি। বরং অতিদ্রুত ফ্রি-কিক নেওয়ায় সতর্ক করা হয় জিনচেঙ্কোকে।

৩৪ মিনিটে ওয়েলস অধিনায়ক বেলের ফ্রি-কিক ক্লিয়ার করতে গিয়ে দলকে বিপদে ফেলেন আন্দ্রেই ইয়ারমোলেংকো। বেলের জোরালো শট অন্যপ্রান্তে থাকা ইউক্রেন অধিনায়ক ইয়ারমোলেঙ্কো ক্লিয়ার করতে গিয়ে উল্টো হেডের মাধ্যমে নিজেদের জালেই প্রবেশ করান। সেটিই গড়ে দেয় ব্যবধান।

দ্বিতীয়ার্ধেও গোলের জন্য মরিয়া ছিল ইউক্রেন। ম্যাচের প্রায় শেষ দিকে আর্তেম ডভিকের জোরালো হেড ঠেকিয়ে ওয়েলসের জাল অক্ষত রাখেন গোলরক্ষক হেনেসি।

কাতার বিশ্বকাপে ‘বি’ গ্রুপে ওয়েলসের তিন প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্রও ইরান।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর