ঢাকা ০৫:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কিশোরগঞ্জে স্কুলছাত্রী অপহরণ: ‘মামলা নিচ্ছেনা পুলিশ’

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:০৫:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অগাস্ট ২০১৫
  • ৩৭৯ বার

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চর আলগী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী মীম আক্তারকে (১১) অপহরণ করা হয়েছে। ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১০ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়েছে তার বাবা-মাকে। এ ঘটনায় পুলিশ মামলা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুরে দত্তেরবাজারে দুধ বিক্রি করতে গিয়ে অপহৃত হয় মীম।

সে বাড়িতে ফিরে না আসায় খোঁজাখুঁজি করে পরিবারের সদস্যরা। মঙ্গলবার রাত ভোর সাড়ে ৩টার দিকে ০১৭২৮০৫৯৬১০ নাম্বার থেকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। অসহায় কৃষক পিতা কাজল মিয়ার টাকা দেয়ার সামর্থ নেই। পাগলা থানায় মেয়ে উদ্ধারে অভিযোগ নিয়ে গেলে তা গ্রহণ করেনি পুলিশ। অপহৃতের পিতা কাজল জানান, পাগলা থানায় গেলে বলছে পাকুন্দিয়া থানায় মামলা করতে। পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ বলছে পাগলা থানাতেই মামলা করতে হবে। দ্বিতীয় বার পাগলা থানায় গেলে কোর্টে গিয়ে মামলা করতে বলেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাগলা থানার ওসি (ইনচার্জ) বদরুল আলম বলেন, এ ধরণের কোন অভিযোগ নিয়ে এখন পযর্ন্ত আমাদের এখানে কেউ আসেননি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

কিশোরগঞ্জে স্কুলছাত্রী অপহরণ: ‘মামলা নিচ্ছেনা পুলিশ’

আপডেট টাইম : ১১:০৫:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অগাস্ট ২০১৫

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চর আলগী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী মীম আক্তারকে (১১) অপহরণ করা হয়েছে। ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১০ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়েছে তার বাবা-মাকে। এ ঘটনায় পুলিশ মামলা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুরে দত্তেরবাজারে দুধ বিক্রি করতে গিয়ে অপহৃত হয় মীম।

সে বাড়িতে ফিরে না আসায় খোঁজাখুঁজি করে পরিবারের সদস্যরা। মঙ্গলবার রাত ভোর সাড়ে ৩টার দিকে ০১৭২৮০৫৯৬১০ নাম্বার থেকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। অসহায় কৃষক পিতা কাজল মিয়ার টাকা দেয়ার সামর্থ নেই। পাগলা থানায় মেয়ে উদ্ধারে অভিযোগ নিয়ে গেলে তা গ্রহণ করেনি পুলিশ। অপহৃতের পিতা কাজল জানান, পাগলা থানায় গেলে বলছে পাকুন্দিয়া থানায় মামলা করতে। পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ বলছে পাগলা থানাতেই মামলা করতে হবে। দ্বিতীয় বার পাগলা থানায় গেলে কোর্টে গিয়ে মামলা করতে বলেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাগলা থানার ওসি (ইনচার্জ) বদরুল আলম বলেন, এ ধরণের কোন অভিযোগ নিয়ে এখন পযর্ন্ত আমাদের এখানে কেউ আসেননি।