ঢাকা ০৭:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টসই কি দ. আফ্রিকার ‘চোকার্স’ তকমা মুছে দিল

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:১২:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০২৪
  • ১৪ বার

সেমিফাইনালে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন আফগানিস্তান অধিনায়ক রশিদ খান। আগে ব্যাটিং করে ৪৯ বল বাকি থাকতে আফগানরা গুটিয়ে যায় মাত্র ৫৬ রানে। রান তাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা এই ম্যাচ জয় পেয়েছে ৯ উইকেটের বিরাট ব্যবধানে। বলা যায়, সেমিফাইনালে কোনো রোমাঞ্চই দেখেনি সমর্থকরা।

ম্যাচ শেষে প্রোটিয়া অধিনায়ক এইডেন মার্করাম টস হারাকে ‘ভাগ্যবান’ বলছেন তিনি। কারণ টস জিতলে তিনিও ব্যাটিং বেছে নিতেন। আর আফগানিস্তান টস জিতে ব্যাটিং করায় পরে বোলিং করায় ব্যাটিং ব্যর্থতায় পড়তে হয়নি তাদের।

আফগানিস্তানকে গুঁড়িয়ে দিয়ে মার্করাম বলেছেন, ‘ভাগ্য ভালো যে টসে হেরেছি। না হয় আমরাও ব্যাটিং করতাম। আমরা বোলিংয়ে ভালো করেছি, এটাকে সঠিক জায়গায় কাজে লাগাতে পেরেছি। বোলিং সহজভাবেই ভেবেছি। বোলাররা আমাদের জন্য অবিশ্বাস্য। ব্যাট করা এখানে চ্যালেঞ্জিং ছিল। ’

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে এর আগে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হয়েছে ৮টি। ৪ বার করে জয় পেয়েছে আগে ব্যাট করা এবং পরে ব্যাট করা দলগুলো। টস জয়ের সাথে ম্যাচের জয়-পরাজয় সমান হলেও, এই মাঠে আগে ব্যাটিংই করতে চাইবে যে কোন দল। ২০২২ সালে এই মাঠে প্রথম টি-টোয়েন্টি হয়। নতুন উইকেট হওয়ায় ব্যাটসম্যানদের সুবিধা আছে এখানে। তাই টস জিতে চোখ বুঝে ব্যাটিংই বেছে নেন রশিদ খান।

আর এখানেই খেই হারিয়েছে আফগানিস্তান। নতুন বলে প্রোটিয়া পেসারত্রয়ী মার্কো জানসেন, কাগিসো রাবাদা এবং অ্যানরিচ নর্টজের বিপক্ষে পেরে উঠতে পারেনি আফগানরা। দলটির ব্যাটিং অর্ডারের শুরুর ছয় ব্যাটসম্যান উইকেট দিয়েছেন এই তিন পেসারকে। যেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি আফগানিস্তান।

আফগানিস্তানের টস জিতে ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত অবশ্য অমূলক নয়। গ্রুপপর্বে নিউজিল্যান্ডকে তারা হারিয়েছে আগে ব্যাট করে। এছাড়া সুপার এইটে অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশের বিপক্ষেও তাদের জয় এসেছে আগে ব্যাট করে। কিন্তু সেমিফাইনালে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত কাজে আসেনি আফগানদের। অবশ্য ম্যাচ শেষে কন্ডিশন বুঝতে পারার ব্যর্থতাকে সামনে এনেছেন দলটির অধিনায়ক রশিদ খান।

‘দল হিসেবে এটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল। আমরা হয়তো আরও ভালো করতে পারতাম কিন্তু আমরা যা চেয়েছি কন্ডিশনের জন্য পারিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এমনই, আপনাকে সব কন্ডিশনের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। আমি মনে করি তারা (দক্ষিণ আফ্রিকা) সত্যিই ভালো বোলিং করেছে। ’

আগামী ২৯ জুন, বার্বাডোজের কিংসটাউনে ফাইনাল ম্যাচে মাঠে নামবে দক্ষিণ আফ্রিকা। আইসিসি আসরে প্রথমবার ফাইনাল খেলবে তারা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

টসই কি দ. আফ্রিকার ‘চোকার্স’ তকমা মুছে দিল

আপডেট টাইম : ১১:১২:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০২৪

সেমিফাইনালে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন আফগানিস্তান অধিনায়ক রশিদ খান। আগে ব্যাটিং করে ৪৯ বল বাকি থাকতে আফগানরা গুটিয়ে যায় মাত্র ৫৬ রানে। রান তাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা এই ম্যাচ জয় পেয়েছে ৯ উইকেটের বিরাট ব্যবধানে। বলা যায়, সেমিফাইনালে কোনো রোমাঞ্চই দেখেনি সমর্থকরা।

ম্যাচ শেষে প্রোটিয়া অধিনায়ক এইডেন মার্করাম টস হারাকে ‘ভাগ্যবান’ বলছেন তিনি। কারণ টস জিতলে তিনিও ব্যাটিং বেছে নিতেন। আর আফগানিস্তান টস জিতে ব্যাটিং করায় পরে বোলিং করায় ব্যাটিং ব্যর্থতায় পড়তে হয়নি তাদের।

আফগানিস্তানকে গুঁড়িয়ে দিয়ে মার্করাম বলেছেন, ‘ভাগ্য ভালো যে টসে হেরেছি। না হয় আমরাও ব্যাটিং করতাম। আমরা বোলিংয়ে ভালো করেছি, এটাকে সঠিক জায়গায় কাজে লাগাতে পেরেছি। বোলিং সহজভাবেই ভেবেছি। বোলাররা আমাদের জন্য অবিশ্বাস্য। ব্যাট করা এখানে চ্যালেঞ্জিং ছিল। ’

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে এর আগে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হয়েছে ৮টি। ৪ বার করে জয় পেয়েছে আগে ব্যাট করা এবং পরে ব্যাট করা দলগুলো। টস জয়ের সাথে ম্যাচের জয়-পরাজয় সমান হলেও, এই মাঠে আগে ব্যাটিংই করতে চাইবে যে কোন দল। ২০২২ সালে এই মাঠে প্রথম টি-টোয়েন্টি হয়। নতুন উইকেট হওয়ায় ব্যাটসম্যানদের সুবিধা আছে এখানে। তাই টস জিতে চোখ বুঝে ব্যাটিংই বেছে নেন রশিদ খান।

আর এখানেই খেই হারিয়েছে আফগানিস্তান। নতুন বলে প্রোটিয়া পেসারত্রয়ী মার্কো জানসেন, কাগিসো রাবাদা এবং অ্যানরিচ নর্টজের বিপক্ষে পেরে উঠতে পারেনি আফগানরা। দলটির ব্যাটিং অর্ডারের শুরুর ছয় ব্যাটসম্যান উইকেট দিয়েছেন এই তিন পেসারকে। যেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি আফগানিস্তান।

আফগানিস্তানের টস জিতে ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত অবশ্য অমূলক নয়। গ্রুপপর্বে নিউজিল্যান্ডকে তারা হারিয়েছে আগে ব্যাট করে। এছাড়া সুপার এইটে অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশের বিপক্ষেও তাদের জয় এসেছে আগে ব্যাট করে। কিন্তু সেমিফাইনালে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত কাজে আসেনি আফগানদের। অবশ্য ম্যাচ শেষে কন্ডিশন বুঝতে পারার ব্যর্থতাকে সামনে এনেছেন দলটির অধিনায়ক রশিদ খান।

‘দল হিসেবে এটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল। আমরা হয়তো আরও ভালো করতে পারতাম কিন্তু আমরা যা চেয়েছি কন্ডিশনের জন্য পারিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এমনই, আপনাকে সব কন্ডিশনের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। আমি মনে করি তারা (দক্ষিণ আফ্রিকা) সত্যিই ভালো বোলিং করেছে। ’

আগামী ২৯ জুন, বার্বাডোজের কিংসটাউনে ফাইনাল ম্যাচে মাঠে নামবে দক্ষিণ আফ্রিকা। আইসিসি আসরে প্রথমবার ফাইনাল খেলবে তারা।