,

download (1)

সারাদেশে জেঁকে বসেছে শীত কনকনে হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ দেশের সর্বউত্তরের জেলাগুলোতে তীব্র শীত নেমে এসেছে। পঞ্চগড়ে পাঁচ দিন ধরে বয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। এসব অঞ্চলে পৌষের প্রথম সপ্তাহেই জেঁকে বসেছে হাড় কাঁপানো শীত। বিশেষ করে  কুয়াশা কম থাকায় সকালে ঝলমলে রোদের দেখা মিললেও উত্তরের হিমেল বাতাসে কাবু হয়ে পড়েছে এ জনপদের মানুষ। যেখানে তাপমাত্রার হিসাবে শৈত্যপ্রবাহ নেই, সেখানেও শীতের প্রকোপ অনেক।

রোববার পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সারাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ১১ ডিসেম্বর থেকে গতকাল পর্যন্ত টানা ৯ দিন তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হলেও পাঁচ দিন ধরে বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস বলছে, সোমবার থেকে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের বেশিরভাগ জেলা, সিলেটের মৌলভীবাজার, খুলনা বিভাগের যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকতে পারে। রাজধানীসহ দেশের প্রধান শহরগুলোতে আপাতত শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা না থাকলেও আগামী কয়েক দিন তাপমাত্রা এক থেকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ বলেন, “জানুয়ারির শুরুতে মাঝারি থেকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে।”

আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক বলেন, “দু’এক দিনের ​মধ্যে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগে তাপমাত্রা কমে যেতে পারে।”

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবার অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুস্ক থাকতে পারে। ভোরের দিকে দেশের কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাতে তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং দিনে সামান্য হ্রাস পেতে পারে।

রোববার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সীতাকুণ্ডু ও কক্সবাজারে ২৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি এবং সর্বনিম্ন ছিল তেঁতুলিয়ায় ৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় আজ সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৫টা ১৬ এবং আগামীকাল মঙ্গলবার সূর্যোদয় ভোর ৬টা ৩৬ মিনিটে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর