,

28

যেসব ফোনে মিলবে ১২ জিবি র‌্যাম

হাওর বার্তা ডেস্কঃ গেমিং ও অন্যান্য কাজে স্মার্টফোনে আগের থেকে অনেক বেশি র‍্যাম ব্যবহার হচ্ছে। আজকাল প্রায় সব স্মার্টফোনেই ৬ কিংবা ৮ জিবি র‍্যাম দেখা যায়। এই পরিমাণ র‍্যাম স্মার্টফোনে যথেষ্ট হলেও দুর্দান্ত গেমিং ও একই সঙ্গে মাল্টি টাস্কিংয়ের জন্য চাই ১ ২জিবি র‍্যাম। জেনে নিন ১২ জিবি র‌্যামের কয়েকটি ফোন সম্পর্কে।

রিয়েলমি এক্স২ প্রো ২৫৬জিবি এই ফোনে রয়েছে ৬.৫ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস চিপসেট দেয়া হয়েছে। সঙ্গে আছে ১২ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ। ফোনটি চলবে অ্যানড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে। এতে ডুয়েল সিম স্লট রয়েছে।

ছবির জন্য ফোনটিতে আছে ৬৪ মেগাপিক্সেল + ১৩ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফোনটিতে ডুয়েল ফোরজি সাপোর্ট করে।

ব্যাকআপের জন্য এতে ৪০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ও ৫০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির সংমিশ্রণ ঘটানো হয়েছে।

ওয়ানপ্লাস নর্ড ২৫৬জিবি

ওয়ান প্লাসের এই ফোনটিতে ৬.৪৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে দেয়া হয়েছে। আছে স্ন্যাপড্রাগন ৭৬৫জি চিপসেট। ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ আছে ফোনটিতে। এটি চলবে অ্যানড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে।

ডুয়েল সিমের নতুন এই ফোনে ৪৮ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে। নেটওয়ার্কিংয়ের জন্য মিলবে ৫জি সাপোর্ট। ব্যাকআপের জন্য দেয়া হয়েছে ৪১১৫ এমএএইচ ব্যাটারি।

রিয়েলমি এক্স৩ সুপারজুম এডিশন

ফোনটিতে ৬.৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে। এতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস চিপসেট দেয়া হয়েছে। র‌্যাম আছে ১২ জিবি। স্টোরেজ ২৫৬ জিবি। ফোনটি চলবে অ্যানড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে।

ডুয়েল সিমের এই ডিভাইসে ৬৪ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে।

ব্যাকআপের জন্য ৪২০০ এমএএইচ ব্যাটারি ও ৩০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি ব্যবহৃত হয়েছে।

আইকু ৩ ৫জি

ফোনটিতে ৬.৪৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে। আরো আছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ চিপসেট, ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ।

৫জি কানেকটিভি সমৃদ্ধ ফোনটিতে ৪৮ মেগাপিক্সেল + ১৩ মেগাপিক্সেল + ১৩ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে।

ব্যাকআপের জন্য আছে ৪৪৪০ এমএএইচ ব্যাটারি।

রিয়েলমি এক্স৫০ প্রো

ফোনটিতে ৬.৪৪ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে মিলবে। এতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস চিপসেট, ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ রয়েছে।

অ্যানড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমের এই ফোনে ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে। এতে ৬৪ মেগাপিক্সেল + ১২ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে।

৫ জি নেটওয়ার্ক কানেকশন মিলবে এতে। ব্যাকআপের জন্য রয়েছে ৪২০০ এমএএইচ ব্যাটারি।

৫০ হাজার টাকার মধ্যে এই ফোনগুলো বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর