মতৈক্যে পৌঁছতে ব্যর্থ পিএমএল ও পিপিপি তৎপর পিটিআই

জোট সরকার গঠনের জন্য ক্ষমতা ভাগাভাগির কৌশল নিয়ে মতৈক্যে পৌঁছতে পারেনি নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) ও বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি), যদিও আলোচনায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জনের দাবি করেছে দল দুটি। এদিকে কেন্দ্র ও বিভিন্ন প্রদেশে সরকার গঠনের দাবি পুনর্ব্যক্ত করেছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

গত শনিবার তৃতীয়বারের মতো বৈঠকে বসে পিএমএল-এন ও পিপিপি। মতৈক্যে পৌঁছতে ব্যর্থ দল দুটির নেতারা ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে আজ সোমবার আবারও বৈঠক করবেন।

গতকালের বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে পিএমএল-এন জানায়, আলোচনায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। এ সময় একটি শক্তিশালী গণতান্ত্রিক সরকারের প্রয়োজনীয়তায় জোর দেয় দলটি।

অন্যদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে পিপিপির এক নেতা বলেন, পিপিপি জাতীয় পরিষদের স্পিকার পদটি চাইছে। এ ছাড়া পিপিপি পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের শীর্ষ পদটি নিজের রাখতে চায়, কারণ দলটি মনে করে—পিএমএল-এনের পার্লামেন্টের অধীনে তারা নিজেদের হারানো গৌরব অর্জন করতে পারবে না।

কারণ পিএমএল-এনের অতীত রেকর্ড ভালো না। পিপিপি সূত্রের দাবি, সব কিছু নির্ভর করছে দুই দলের কমিটির মধ্যে চলমান আলোচনার ফলাফলের ওপর।

সূত্র আরো জানিয়েছে, বিভিন্ন প্রদেশে উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বিভিন্ন প্রদেশে, বিশেষ করে সিন্ু্লতে কোনো বাধা ছাড়াই উন্নয়ন তহবিল ছাড়ের বিষয়ে পিএমএল-এন নেতৃত্বের কাছে আশ্বাস চেয়েছে পিপিপি।

এ ছাড়া বেলুচিস্তানে প্রাদেশিক সরকার গঠন নিয়েও দুই দলের আলোচনা হয়েছে।সরকার গঠন করতে চায় পিটিআইও

ইমরান খানের দল পিটিআই মনোনীত প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী ওমর আইয়ুব খান গতকাল ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, কেন্দ্র ও প্রদেশে সরকার গঠন করবে পিটিআই। কয়েক মাস ধরে পিটিআই সমর্থকদের ওপর চলমান নিপীড়নের নিন্দা জানিয়ে ওমর আইয়ুব খান বলেন, ‘এখনো পুলিশ আমাদের কর্মী ও সমর্থকদের উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এবং চাপ প্রয়োগ করছে। এটা কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাজ নয়।’

জনরায় মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ওমর আইয়ুব বলেন, ‘যেসব দল ৪০টিরও বেশি আসন জিততে পারেনি, তাদের জনগণের কথা শুনতে হবে।

জনগণ ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মেনে নিয়েছে।’ পিএমএল-এন ও পিপিপি ৮ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে কারচুপির সুবিধাভোগী বলে মন্তব্য করেন এই পিটিআই নেতা। ভোট কারচুপির বিষয়ে রাওয়ালপিন্ডির কমিশনার যে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন, তা নিয়ে স্বাধীন বিচারকদের সমন্বয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন তিনি।পিটিআই নেতার বাড়িতে অভিযান

এদিকে গত শনিবার রাতে পিটিআইয়ের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট শের আফজাল মারওয়াতের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। এ সময় তাঁর ল্যাপটপ জব্দ করা হয়। আফজাল বলেন, ‘আমি বাড়ি থেকে কোনোমতে পালিয়ে এসেছি।’

পিপিপির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জারদারি

গতকাল সিন্ধু প্রদেশের থাট্টা শহরে এক সমাবেশে পিপিপি চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি বলেছেন, ‘দেশে ছড়িয়ে পড়া অস্থিরতা নিয়ন্ত্রণ করতে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আমাদের প্রার্থী হবেন আসিফ আলী জারদারি।’

এ সময় রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়মের মধ্যে থাকতে এবং দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করার আহ্বান জানান বিলাওয়াল। বিলাওয়াল বলেন, “আমাকে বলা হয়েছিল, পিএমএল-এনের নেতা প্রথম তিন বছর প্রধানমন্ত্রিত্ব করবেন, বাকি দুই বছর আমি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করব। তবে আমি ‘না’ বলে দিয়েছি। আমি এভাবে প্রধানমন্ত্রী হতে চাই না। আমি তখনই প্রধানমন্ত্রী হব, যখন পাকিস্তানের জনগণ আমাকে নির্বাচিত করবে।”

বিরোধী দলে যেতে প্রস্তুত পিএমএল-এন

পিএমএল-এনের নেতা খাজা আসিফ দাবি করেছেন, দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য তাঁর দল বিরোধী দলে যেতে প্রস্তুত রয়েছে।

রাওয়ালপিন্ডি কমিশনারের আত্মসমর্পণ

নির্বাচনে কারচুপি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করার পর পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন রাওয়ালপিন্ডির আলোচিত কমিশনার লিয়াকত আলী চাতা। পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, কমিশনারকে গ্রেপ্তার করা হয়নি, কারণ তাঁর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই। অভিযোগ ওঠার পর তাঁকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

বেলুচিস্তানে ধর্মঘট

ভোট কারচুপির প্রতিবাদে বেলুচিস্তানে ধর্মঘট পালন করেছে বিএনপি, পশতুনখোয়া মিল্লি আওয়ামী পার্টি, হাজারা ডেমোক্রেটিক পার্টি ও ন্যাশনাল পার্টি। এ সময় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর