,

ইসিতে প্রেষণে কর্মকর্তা নিয়োগ বন্ধসহ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের আট দফা দাবি

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সরকারের অন্য বিভাগ থেকে প্রেষণে কর্মকর্তা নিয়োগ বন্ধ এবং জাতীয় পরিচয়পত্র ইসির অধীনে রাখাসহ আটদফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ইলেকশন কমিশন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনটি।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন সচিবের কাছে লিখিতভাবে এ আটদফা দাবি পেশ করা হয়। সেখানে বলা হয়, আগামী ৮ ডিসেম্বর অর্ধ দিবস কলম বিরতি পালন করা হবে সংগঠনটির পক্ষ থেকে। এছাড়া কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচিও পালন করারও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

কার্যনির্বাহী সভায় অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা বলেন, ইসির শূন্য পদে লোকবল নিয়োগের কোনো উদ্যোগ নেই। অথচ অন্য বিভাগ থেকে ইসিতে প্রেষণে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এতে ইসি কর্মকর্তাদের কর্মস্পৃহা কমে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এটি কোনোভাবেই যৌক্তিক নয় বলে মন্তব্য করেন সংগঠনের সদস্যরা।

অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের দাবিগুলো হলো-

১) এনআইডি সেবা কার্যক্রম নির্বাচন কমিশনের অধীনে রাখা এবং নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সকল ধরনের প্রেষণে পদায়ন বন্ধ ও শূন্য পদ পূরণে মাননীয় নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দৃশ্যমান কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ।

২) কমিশন কর্তৃক প্রস্তাবিত ইভিএম প্রকল্প লজিস্টিকসহ (ওয়্যারহাউজ ও যানবাহন) অনুমোদনে মাননীয় নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দৃশ্যমান কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ।

৩) প্রস্তাবিত সাংগঠনিক কাঠামো দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে মাননীয় নির্বাচন কমিশন কর্তৃক কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ।

৪) উল্লিখিত বিষয়ে আগামী ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে দৃশ্যমান পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ৫ ডিসেম্বর কালোব্যাজ ধারণ।

৫) ৮ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) অর্ধদিবস কলম বিরতি পালন।

৬) উক্ত সময়ের মধ্যে দৃশ্যমান কোনো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্তের আলোকে কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

৭) ঘোষিত কর্মসূচি নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, এনআইডি, ইটিআই ও মাঠপর্যায়ের সকল পর্যায়ের কার্যালয়ে একযোগে পালন করা হবে।

৮) উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে ঘোষিত নির্বাচনি কর্মকাণ্ড এ কর্মসূচির আওতামুক্ত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর