,

স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ায় ঘটককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ার ক্ষোভ থেকে আব্দুল জলিল (৬৫) নামের এক ঘটককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার দিগড় ইউনিয়নের মানাজী (মাইদার চালা) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত যুবকের নাম আলমাস (২৫)। তিনি ওই গ্রামের শহিদুলের ছেলে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক।

নিহত আব্দুল জলিলের ভাগনে আব্দুল বাছেদ ও স্থানীয়রা জানান, আলমাস স্থানীয় একটি করাত কলে কাজ করেন। এর আগেও তিনি তিনটি বিয়ে করেন। কিন্তু একটি বিয়েও বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। পরে ঘটক আব্দুল জলিলের মাধ্যমে ২০১৯ সালে একই উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের প্যাঁচার আটা গ্রামে আলমাস আবার বিয়ে করেন। সেই ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের দুই বছর পর ২০২১ সালে তাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এ নিয়ে আলমাসের ভেতরে চাপা ক্ষোভ কাজ করছিল।

বৃহস্পতিবার জোহরের নামাজ শেষ করে ঘটক আব্দুল জলিল আলমাসের দাদি আয়াতন বেগমের ঘরে পান খেতে বসেন। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা আলমাস ঘরে ঢুকে স্ত্রীকে এনে দেওয়ার কথা বলে জলিলকে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তার মাথা ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, অভিযুক্ত যুবক পলাতক। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর