,

গবিনচাতুল বিলের পদ্ম দেখে মুগ্ধ দর্শনার্থীরা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ নেত্রকোনা সদর উপজেলার ১০০ একর জায়গাজুড়ে চল্লিশা ও কাইলাটি ইউনিয়নের শ্রীধরপুর, নুরপুর, বামনমুখ ও কাইলাটি গ্রামের গবিনচাতুল বিলে ফুটে রয়েছে হাজারো পদ্ম ফুল। এর মনোরম দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন দর্শনার্থীরা।

এছাড়াও কে-গাতি ইউনিয়নের নায়রাপাড়া, রাজাপুর ও গাবরাগাতি গ্রামের ৫০ একর জায়গাজুড়ে ঘোড়াদিঘী বিলে ফুটেছে অসংখ্য শাপলা।

 

প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব স্থানে শাপলা ও পদ্মবিল দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন অসংখ্য ভ্রমণপিপাসুরা। নানা বয়সের মানুষ এখানে আসছেন। মনের আনন্দে নৌকা ভ্রমণের মধ্য দিয়ে বিলের সৌন্দর্য উপভোগ করছেন। স্মৃতি ধরে রাখতে ফ্রেমবন্দি করে রাখছেন সেলফি তুলে। শাপলা ও পদ্ম ফুলের মনোরম দৃশ্য দেখে অনেকেই ভুলে যাচ্ছেন নিজেদের কর্মব্যস্ততা। পড়ার বই বা ছবিতে দেখা শাপলা ও পদ্ম বাস্তবে ছুঁয়ে দেখা যেন এক আলাদা আনন্দ দিচ্ছে শিশুদের। প্রতিদিন ভ্রমণপিপাসুদের আগমনে আনন্দ বিরাজ করছে এলাকাবাসীর মনেও। এসব বিলে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা কম খরচে নৌকা ভ্রমণও করতে পারেন। কাউকে কাউকে বিনা পয়সায়ও বিল ঘুরিয়ে দেখান নৌকার মাঝিরা।

তবে ভ্রমণে আসা অতিথিদের কাছে অতিরিক্ত নৌকার ভাড়া আদায় করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে অসন্তোষও দেখা গেছে।

এদিকে ঘুরতে এসে অনেকে ফুল ছিঁড়ে বিলের সৌন্দর্য নষ্ট করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব বিষয় নিয়ে প্রশাসনের সুদৃষ্টি দাবি করেন ঘুরতে আসা অনেকে।

প্রশাসনের সুদৃষ্টি থাকলে প্রকৃতির লীলাভূমি নেত্রকোনায় পর্যটনের অপার সম্ভাবনা আগামী দিনে আরও বেগবান হবে বলে মনে করেন জেলাবাসী।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর