,

222222

প্রতারণার ফাঁদে যুবকের আত্মহত্যা, গ্রেফতার ৬

হাওর বার্তা ডেস্কঃ পটুয়াখালীতে প্রতারণার ফাঁদে পড়ে রমেন ঘরামি নামে এক যুবকের আত্মহত্যার ঘটনায় চার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে জেলা শহরের কাঠপট্টি এলাকায় অভিযান চালায় দশমিনা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মেহেদী হাসান। এর একদিন আগে র‌্যাব-১১ টিমের সহায়তায় নারায়নগঞ্জ এলাকা থেকে পলাতক অবস্থায় ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত মো. নিজামকে আটক করতে সক্ষম হয় দশমিনা থানার পুলিশ।

এছাড়াও ২২ জুন ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে শহিদুল নামে এক যুবককে আটক করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে শহিদুল জামিনে রয়েছেন। এনিয়ে আটকের সংখ্যা ৬ জন।

মুল আসামী মো. নিজাম খাঁ দশমিনা সদর উপজেলার পূর্বলক্ষিপুর গ্রামের নুরু খায়ের ছেলে এবং নিহত রমেন ঘরামিও নিজামের প্রতিবেশি বলে জানা গেছে। এছাড়াও মুল আসামী মো. নিজাম খাঁ পটুয়াখালী পৌর সভার পরিচ্ছন্নকর্মী বলে জানা গেছে।

অপর আসামীরা হলেন-পটুয়াখালী পৌর শহরের কাঠপট্টি এলাকার খালেক হাওলাদারের ছেলে বেল্লাল হাওলাদার(২৬), কাদের সিকদারের ছেলে সাইদ সিকদার ওরফে আধার(২৭), শাহজাহান গাজীর ছেলে শাহেদ  গাজী (২৮) ও আলতাফ মৃধার ছেলে শাহেদ মৃধা(২৭)।

প্রধান আসামী নিজামের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে জড়িতের কথা স্বীকার করেছে আসামীরা।

ঘটনার বরাত দিয়ে ওসি মেহেদী হাসান বলেন, এক নারী দিয়ে রমেনের সঙ্গে আপত্তিকর ছবি তুলতে বাধ্য করে তার প্রতিবেশি নিজাম খাঁ। এর ওই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে নিজাম ও তার সহযোগীরা রমেনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতো।

ঘটনার পূর্বে নিজাম গং রমেনে কাছে নগদ দুই লাখ টাকা দাবি করে হুমকি দেয়। এতে রমেন ভয় পেয়ে গত ২০ জুন বিষক্রিয়া সেবন করে আত্মহত্যা করে।

আত্মহত্যার আগে প্রতারণার ঘটনা উল্লেখ করে রমেনের একটি ভিডিও বার্তা ছড়িয়ে পরে। যে ভিডিও বার্তা অনুসরণ করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে বলে জানিয়েছেন দশমিনার থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মেহেদী হাসান। ঘটনার পর নিহতের পিতা রনজিৎ ঘরামি বাদি হয়ে মামলা করেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর