,

1650082049_AD-3

ইউক্রেনকে অস্ত্র সহায়তা না দিতে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্কবার্তা রাশিয়ার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ইউক্রেনকে অস্ত্র ও আর্থিক সহায়তা দেওয়া বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়া। যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা যদি ইউক্রেনে সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখে, সেক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অপ্রাত্যাশিত বিপর্যয় নেমে আসবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে মস্কো।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এই দিন রাজধানী ওয়াশিংটনে রুশ দূতাবাসের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরে একটি নোট পাঠিয়েছে মস্কো। সেখানে বলা হয়েছে, ‘এই সময়ে ইউক্রেনকে সামরিকীকরণ করা বা সামরিক সহায়তা দেওয়া খুবই দায়িত্বহীন পদক্ষেপ এবং আমরা যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের এমন দায়িত্বহীন পদক্ষেপ নেওয়া থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।’
‘যদি যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা এই আহ্বানে কর্ণপাত না করে এবং ইউক্রেনকে সামরিক সহায়তা দেওয়া অব্যাহত রাখে, সেক্ষেত্রে তার পরিণতি হবে খুবই অপ্রত্যাশিত এবং আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি হুমকির মুখে পড়বে।’
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র ও তার পশ্চিমা মিত্ররাষ্ট্রসমূহের নিরাপত্তা জোট ন্যাটো কয়েক দফা অস্ত্র ও আর্থিক সহায়তা দিয়েছে ইউক্রেনকে। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, ইউক্রেনকে অতিরিক্ত ৮০০ মিলিয়ন ডলারের অস্ত্র সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র।
মার্কিন সংবাদমাধমগুলো জানিয়েছে, সর্বশেষ এই সহায়তা প্রদানের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসে কোনো আলোচনা হয়নি। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিশেষ ক্ষমতাবলে এর অনুমোদন হয়েছে।
মার্কিন এই সহায়তা প্যাকেজের মধ্যে এমআই যুদ্ধ হেলিকপ্টার, সুইচব্লেড ড্রোন, সহজে পরিবহনযোগ্য ছোট আকারের কামানসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ অন্তর্ভূক্ত রয়েছে।
শুক্রবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো নোটে মস্কোর পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও তার ন্যাটো মিত্ররা সম্ভবত ভুলে যাচ্ছে যে, অতি উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন এসব অস্ত্র যদি বেহাত হয় কিংবা ইউক্রেনের কোনো সন্ত্রাসীগোষ্ঠীর হাতে পড়ে, সেক্ষেত্রে অনেক বড় বিপর্যয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।’
‘একদিকে যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে অস্ত্র সহায়তা দিচ্ছে, অন্যদিকে রাশিয়ার সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও সামরিক সহযোগিতামূলক সম্পর্কে না জড়াতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে চাপ দিচ্ছে- এটিও অত্যন্ত আপত্তিকর।
পশ্চিমা দেশগুলোর সামরিক জোট ন্যাটোকে নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ বাহিনীকে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর নির্দেশ দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিরিম পুতিন। তার দু’দিন আগে, ২২ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দুই প্রদেশ দনেতস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি।
শুক্রবার এই অভিযান পৌঁছেছে ৫১ তম দিনে। এত দিন ইউক্রেনে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলোর অস্ত্র সহায়তা পাঠানোর ব্যাপারটি আমলে না নিলেও বুধবার কৃষ্ণ নাগরে রুশ যুদ্ধজাহাজ মস্কোভায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর থেকে এ বিষয়ে নড়ে চড়ে বসেছে মস্কো।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর