,

1642136050_AD-5

যৌন হয়রানির দায়ে রাজকীয় ও সামরিক মর্যাদা হারালেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু

হাওর বার্তা ডেস্কঃ অপ্রাপ্তবয়স্ককে যৌন হয়রানির দায়ে ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্য প্রিন্স অ্যান্ড্রুর রাজকীয় ও সামরিক মর্যাদা কেড়ে নেওয়া হয়েছে। রাজপরিবারের পক্ষ থেকে ওই পদে অন্য একজনকে স্থলাভিষিক্ত করা হবে। ব্রিটিশ রাজপরিবার সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীকে যৌন হয়রানি করার মামলায় যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়ানি আদালতে অভিযুক্ত প্রিন্স অ্যান্ড্রু। যদিও তিনি বরাবর অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।
গত বৃহস্পতিবার প্রিন্স অ্যান্ড্রুর ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা যায়, তিনি ভার্জিনিয়া জিউফ্রে নামে ওই নারীর অভিযোগের বিরুদ্ধে ‘আত্মপক্ষ’ সমর্থন করে যাবেন।
এর আগে গত বুধবার আদালতের কাছে মামলা খারিজের আবেদন করেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। কিন্তু তাঁর আবেদন প্রত্যাখ্যান করে আদালত বলেন, জিউফ্রের মামলা চলবে।
যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে করা মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জিউফ্রে যৌনদাসী পাচার চক্রের খপ্পরে পড়েছিলেন। অভিযুক্ত যৌন নিপীড়ক জেফ্রি এপস্টিন তাঁকে ব্যবহার করেছেন। এই লোকের সঙ্গে প্রিন্স অ্যান্ড্রু সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে।
জিউফ্রে দাবি করেন, এপস্টিন অন্য ক্ষমতাবান লোকদের কাছে তাঁকে ধার দিতেন। এই বিলিয়নিয়ার পরে তাঁকে প্রিন্স অ্যান্ড্রুর শয্যাসঙ্গী হতে বিক্রি করে দেন। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর। প্রিন্স তাঁকে তিনবার যৌন নিপীড়ন করেছেন। এসব ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে। যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী তখন তিনি অপ্রাপ্তবয়স্ক।

সূত্র : বিবিসি

 

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর