,

corona-final-samakal-61cbcc87d2b98

ওমিক্রন আতঙ্কের মধ্যে করোনার নতুন ধরন ফ্রান্সে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ওমিক্রন আতঙ্কের মধ্যেই ফ্রান্সে করোনাভাইরাসের নতুন একটি ধরন শনাক্ত হয়েছে। ধরনটির নাম ‘আইএইচইউ’ বা ‘বি.১.৬৪০.২’।

প্রাথমিকভাবে বিশেষজ্ঞদের দাবি, ওমিক্রনের চেয়েও বেশি মারাত্মক হতে পারে এটি। ধরনটি শনাক্ত করেন ‘আইএইচইউ মেডিটেরিয়ান ইনফেকশন ইনস্টটিউট’র গবেষকরা।

তাদের দাবি, এটির ইতোমধ্যে ৪৬ বার মিউটেশন বা রূপ পরিবর্তন হয়েছে, যা ওমিক্রনের (৩২ বার) থেকেও বেশি।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে দশ লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্তের নতুন বিশ্বরেকর্ড হয়েছে। আর ভারতে সংক্রমণ দ্রুতগতিতে বাড়ছে।

দেশেটির বিভিন্ন রাজ্যে রাত্রীকালিন কারফিউ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধসহ নানা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। খবর এএফপি, রয়টার্স ও টাইম অব ইন্ডিয়ার।

১০ ডিসেম্বর ফ্রান্সে নতুন ধরনটি প্রথম শনাক্ত হয়। এটি নিয়ে সতর্ক করেছেন মার্কিন বিশেষজ্ঞ এরিক ফেইগল-ডিং। টুইটারে তিনি জানিয়েছেন, ‘কয়েকজন আইএইচইউ-আক্রান্তের সন্ধান পাওয়ার পর ফ্রান্সের বিজ্ঞানীরা বিপদঘণ্টা বাজিয়েছেন। ধরনটির ৪৬ বার মিউটেশন হয়েছে।’ ফ্রান্সের মার্সেইয়ে কমপক্ষে ১২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের নতুন এই ধরনটির সন্ধান মিলেছে। আফ্রিকা মহাদেশের ক্যামেরুনে যাত্রার সঙ্গে তাদের সবারই কোনো ধরনের যোগসূত্র আছে। দক্ষিণ-পূর্ব ফ্রান্সের যে ব্যক্তির দেহে প্রথম আইএইচইউ ভেরিয়েন্টের খোঁজ মিলেছে, তিনি ক্যামেরুন থেকে ফিরেছেন। তিনি করোনার টিকাও নিয়েছিলেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, আইএইচইউ ওমিক্রনের চেয়ে মারাত্মক সেটা এখনই নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। নিশ্চিত হওয়ার জন্য আরও গবেষণার প্রয়োজন। যদিও ওমিক্রনের চেয়ে আইএইচইউ বেশিবার রূপ পরিবর্তন করেছে। তারপরও এখনই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছে নারাজ তারা।

যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সংক্রমণ ১০ লাখ : করোনায় দৈনিক সংক্রমণে নতুন বিশ্বরেকর্ড করল যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে সোমবার ১০ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এর আগে কোনো দেশে একদিনের ব্যবধানে এত রোগী শনাক্ত হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয় এ তথ্য জানিয়েছে। করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়ানোর পর এই রেকর্ড হলো দেশটিতে। জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য মতে, এদিন যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছেন ১ হাজার ৬৮৮ জন। চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলগুলো খোলার পরিকল্পনা থেকে পিছিয়ে এসেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

ভারতে বাড়ছে সংক্রমণ : দেশটিতে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ হাজারের বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। সেপ্টেম্বরের পর দেশটিতে একদিনে এত সংক্রমণ শনাক্ত হলো।

ভারতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান ১২৪ জন। সংক্রমণ পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভারতে রাজ্যে রাজ্যে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আক্রান্ত হয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও।

পরিস্থিতি সামলাতে দিল্লিতে সপ্তাহ শেষে কারফিউ জারির সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রাজ্য কর্তৃপক্ষ। গোয়ায় রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাঞ্জাবে কারফিউ কার্যকর করা হয়েছে এবং সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গেও একই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দিল্লি, হরিয়ানা, তামিলনাড়ু, ওডিশা, মহারাষ্ট্র, কর্নাটকেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর