,

image-23856-1640244071

নতুন ধরনের ওমিক্রনে হাসপাতালে ভর্তির ঝুঁকি ডেল্টার তিন ভাগের একভাগ: গবেষণা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ডেল্টার তুলনায় এই ভাইরাসটির নতুন রূপান্তরিত ধরন ওমিক্রনে আক্রান্তদের গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ঝুঁকি বেশ কম- তিন ভাগের একভাগ। যুক্তরাজ্যে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ তথ্য জানা গেছে।

শুক্রবার যুক্তরাজ্যের সরকারি স্বাস্থ্যসেবা সংস্থা ইউকে হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সির (ইউকেএইচএসকে) ওয়েবসাইটে ছাপা হয়েছে এই গবেষণা প্রবন্ধ। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এমআরসি বায়োস্ট্যাটিকটিক্স বিভাগ যুক্তরাজ্যের ১০ লাখেরও বেশি করোনা রোগীর তথ্য পর্যালোচনা করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে। এই রোগীদের মধ্যে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫ লাখ ২৮ হাজার ১৭৬ জন এবং ডেল্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৭৩ হাজার ১২ জন।

গবেষণায় আরও জানা গেছে, ওমিক্রন ঠেকাতে করোনা টিকা বেশ ভালোভাবেই কার্যকর। এ প্রসঙ্গে গবেষণা প্রবন্ধে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা বলেন, ‘যারা করোনাটিকার দ্বিতীয় বা তৃতীয় ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন, ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে তাদের হাসপাতালে ভর্তির ঝুঁকি টিকা না নেওয়া লোকজনের তুলনায় অন্তত ৮১ শতাংশ কম।’

ইউকেএইচএসকের শীর্ষ মেডিকেল কর্মকর্তা সুসান হপকিন্স রয়টার্সকে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, সাম্প্রতিক এই গবেষণা প্রতিবেদন বেশ আশাব্যাঞ্জক, তবে বর্তমানে যুক্তরাজ্যে ওমিক্রন সংক্রমণের যে বাড়বাড়ন্ত, তাতে রীতিমতো ধুঁকছে দেশটির স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা।

রয়টার্সকে তিনি বলেন, ‘গত শতকের ষাটের দশকে ইংল্যান্ডে যে জনসংখ্যা ছিল, যুক্তরাজ্যে বর্তমানে করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত মানুষের সংখ্যা তার চেয়েও বেশি। এ কারণে আমি এখনই আশাবাদী হতে পারছি না।’

করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরনের স্বীকৃতি পাওয়া ওমিক্রনের প্রভাবে যুক্তরাজ্যে প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত রোগী সংখ্যা। সরকারি তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার দেশটিতে করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ৮৪৬ জন, যা মহামারির দুই বছরে যুক্তরাজ্যে একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড।

প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই হাসপাতালে রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। তবে সরকারের পক্ষ ইতোমধ্যে জনগণকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে- ওমিক্রন ভাইরাসটি ডেল্টা ভাইরাসের চেয়ে কম প্রাণঘাতী।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর