,

dd8e0235-bal

প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের দিকে নজর আজ কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক

হাওর বার্তা ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক আজ। চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের মাঠপর্যায়ে বিশৃঙ্খলা, সহিংসতা, বিদ্রোহী প্রার্থী দমাতে বহিষ্কারের হিড়িক, মেয়াদোত্তীর্ণ সহযোগী সংগঠনের কমিটির সম্মেলন, ২২তম জাতীয় সম্মেলন এবং ২০২৩ সালে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দিক নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই নেতাকর্মীদের কাছে এবারের কার্যনির্বাহী সংসদের সভাটি বেশ গুরুত্ব বহন করছে। দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা কী সিদ্ধান্ত দেবেন এবং কী কী নির্দেশনা দেবেন সে দিকে নজর নেতাকর্মীদের। এছাড়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধা রণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের ভাগ্যে কী ঘটবে সে সিদ্ধান্তও নেয়া হবে আজকের এই বৈঠকে।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে বিকাল ৪টার এ বৈঠকে আটজন সাংগঠনিক সম্পাদক তাদের বিভাগের দলীয় রিপোর্ট পেশ করবেন। সাংগঠনিক সম্পাদকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ইউপি নির্বাচনে প্রভাবশালীদের দলের বিরুদ্ধে কাজের বিষয়টি তুলে ধরবেন তারা। এছাড়া বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা সম্মেলনে কমিটি গঠন নিয়ে নানা সমস্যা, জটিলতা এমপি মন্ত্রীদের বলয়ের কথাও তুলে ধরবেন।

সূত্র জানায়, কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে চলমান ইস্যুর বাইরেও নানা দিক নির্দেশনা দিয়ে থাকেন প্রধানমন্ত্রী। গত কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে আগামী জাতীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া বিরোধপূর্ণ জেলা কমিটি ভেঙে আহবায়ক কমিটি গঠন করে সম্মেলনের নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এবার দলীয় বিষয়ে নতুন দিক নির্দেশনা আসবে বলে মনে করছেন কেন্দ্রীয় নেতারা।

সূত্র আরো জানায়, আওয়ামী লীগের কোন নেতাকর্মীকে দল থেকে বহিষ্কার করতে হলে কেন্দ্রীয় সংগঠনের অনুমতি নিতে হয়। সরাসরি তৃণমূল থেকে বহিষ্কার করতে পারে না। সাময়িক অব্যহতি দিতে পারে। কিন্তু ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের দমাতে প্রায় একশোর উপরে নেতাকর্মীদের বহিষ্কার করেছে তৃণমূল সংগঠন। যার অনেক বিষয়ে কেন্দ্রের কাছে অনুমতি নেয়া হয়নি। নেতাকর্মীদের গণহারে বহিষ্কারের বিষয়ে আলোচনা হবে দলের সর্বোচ্চ এই ফোরামে। এছাড়া নির্বাচনে সহিংসতা নিরসনে করণীয় সম্পর্কেও নির্দেশনা দেবেন শেখ হাসিনা।

সম্প্রতি গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের নিয়ে যে মন্তব্য করেন, সে বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হবে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া বক্তব্য নিয়ে ইতোমধ্যে জাহাঙ্গীরকে শোকজ করা হয়। মেয়র জবাব দিয়েছেন, কিন্তু মেয়রের জবাবে দলের হাইকমান্ড সন্তুষ্ট নন বলে জানা গেছে। শুক্রবারের বৈঠকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হতে পারে। শুধু মেয়র জাহাঙ্গীর নন, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য বেশ কিছু নেতার বিরুদ্ধেও কেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ জমা পড়েছে। তাদের বিষয়ে গণভবনের বৈঠক কী সিদ্ধান্ত হতে যাচ্ছে, সারা দেশের লাখ লাখ নেতা-কর্মী তা জানার অপেক্ষায়।

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, তাঁতী লীগ, ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। ডিসেম্বর মাস অথবা আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ সব কমিটির সম্মেলনের তারিখ ঘোষণার তাগিদ আসতে পারে কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে। এ ছাড়াও যুবলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের দীর্ঘদিন সম্মেলন নেই। এ বিষয়ে নতুন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন দলটির নীতিনির্ধারকরা।

আজ কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে কী কী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, বৈঠকে সাংগঠনিক, রাজনৈতিক, আর্থ-সামাজিক ও চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের দ্বন্দ্ব, সংঘাতসহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর