,

image-180256-1636005800bdjournal

আগে জনগণের টাকায় করবস্থান হত, এখন বিজেপি সরকার মন্দির বানায়

 হাওর বার্তা ডেস্কঃ জনগণের টাকা অপব্যয় করে না বর্তমান উত্তরপ্রদেশ সরকার। সেই টাকা রাজ্যের উন্নয়ন এবং মন্দির বানাতে খরচ করা হয়। আগের সরকার জনগণের টাকা দিয়ে ‘কবরস্থান’ বানাত। নাম না করে সমাজবাদী পার্টিকে (এসপি) এভাবেই খোঁচা দিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। খবর আনন্দবাজার অনলাইন।

দীপাবলি উপলক্ষে বুধবার উত্তর প্রদেশের রাম কথা পার্কে একটি অনুষ্ঠানে যান যোগী। সেখান থেকে রাজ্য সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের পরিসংখ্যান তুলে ধরার পাশাপাশি আগের সরকারের কাজের সমালোচনাও করেন তিনি।

যোগী ঘোষণা করেন, আগামী বছরের হোলি পর্যন্ত (ভারতের) প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা প্রকল্পটি চালু রাখা হবে রাজ্যবাসীর স্বার্থে। কোভিড পরিস্থিতিতে এ প্রকল্পের মাধ্যমে গরিবদের বিনামূল্যে রেশন দেওয়া হয়। এ মাসেই সেই প্রকল্পের সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু যোগী রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করেছেন, তার সরকার এখনই এ প্রকল্প বন্ধ করছে না। রাজ্যবাসীর সুবিধার্থেই এ প্রকল্প চালু রাখা হচ্ছে।

যোগী জানান, রাজ্যের ১৫ কোটি মানুষকে এ প্রকল্পের সুবিধা দিতে সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার সরকার। শুধু তাই নয়, তিনি নিজে ৬৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫০টি প্রকল্প চালু করেছেন বলেও দাবি করেন যোগী।

অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশে ৫০০টি মন্দির এবং ধর্মীয় স্থানের উন্নয়নের জন্য কেন্দ্র বেশ কয়েকটি প্রকল্প চালু করেছে বলেও জানান যোগী। তার মধ্যে ৩০০টি প্রকল্পের কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়ে গেছে। আগামী দু’মাসের মধ্যে বাকি কাজগুলোও শেষ হয়ে যাবে বলে দাবি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর।

নিজের সরকারের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরার পরই অখিলেশ যাদব সরকারকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি যোগী। তিনি বলেন, ‘কবরস্থানের প্রতি যাদের ভালবাসা তারা জনগণের টাকায় কবরস্থানই বানিয়েছে। কিন্তু যারা ধর্ম এবং সংস্কৃতিকে ভালবাসে তারা সেই মতোই কাজ করছে। এখানেই চিন্তাভাবনার ফারাক।’

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর