,

image-465738-1631771731

নতুন বেশভূষায় আইএসবধূ শামীমা!

হাওর বার্তা ডেস্কঃ যুক্তরাজ্য থেকে পালিয়ে আইএসে যোগ দেওয়া বাংলাদেশি বাংশোদ্ভূত শামীমা বেগম গুড মর্নিং ব্রিটেন নামে একটি টিভি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকারে যোগ দিয়েছেন একেবারে পশ্চিমা ধাঁচের খোলামেলা পোশাক পরে, যে ধরনের পোশাকে তাকে আগে কখনও দেখা যায়নি।

তার পরনে ছিল ধূসর রঙের স্লিভলেস ভি কাট ভেস্ট, মাথায় বেজ বল হ্যাট এবং আঙুলের নখে গোলাপি নেইল পলিশ। খবর বিবিসির।

প্রায় আধাঘণ্টা ধরে এই দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে শামীমা বেগম পালিয়ে গিয়ে আইএসে যোগ দেওয়া, সেখানে তার জীবন এবং কেন এখন তিনি আবার ব্রিটেনে ফিরে আসতে চান তা নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেন।

শামীমা বেগমের এই সাক্ষাৎকার নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন তীব্র আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই অভিযোগ করছেন, শামীমা বেগম আসলে এখন ব্রিটেনে ফিরে আসার জন্য এবং মানুষের সহানুভূতি পাওয়ার উদ্দেশ্যেই ইচ্ছে করে খোলামেলা পশ্চিমা পোশাকে ওই টিভি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

সাক্ষাৎকারে শামীমা বেগমকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তিনি বোরকা ছেড়ে এখন আবার পশ্চিমা ধাঁচের পোশাক পরেছেন, তার উদ্দেশ্য কী?

জবাবে শামীমা বলেন, তিনি হিজাব পরা ছেড়ে দিয়েছেন প্রায় এক বছরেরও বেশি আগে, তিনি নিজেই হিজাব খুলে ফেলেছেন। কারণ তার মনে হচ্ছিল হিজাবের কারণে তিনি একটা গণ্ডির মধ্যে বাঁধা পড়ে যাচ্ছেন। তিনি যদি হিজাব না পরেন, তাতেই তিনি বেশি স্বস্তিবোধ করেন।

তিনি আরও বলেন, তার বেশভূষা ও চেহারায় এ নাটকীয় পরিবর্তন মানুষের মন জয় করার জন্য নয় বলে তিনি দাবি করেন।

সাক্ষাৎকারে ব্রিটেনের আই টিভির উপস্থাপক তাকে প্রশ্ন করেছিলেন— ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আত্মঘাতী হামলাকারী জঙ্গিদের গায়ে তিনি বোমার বেল্ট সেলাই করে বেঁধে দিয়েছেন এমন অভিযোগ আছে। এ ব্যাপারে তিনি কী বলবেন।

উত্তরে শামীমা বলেন, এ রকম কাজ তিনি কখনই করেননি। তিনি বলেন, ব্রিটিশ সরকার যদি সত্যি মনে করে যে, তিনি এ রকম কাজ করেছেন, তা হলে তাকে ব্রিটেনে ফিরিয়ে এনে কেন তারা বিচারের মুখোমুখি করছে না। তিনি দাবি করেন, ব্রিটিশ সরকার আসল সত্য জানে, তিনি কখনই খারাপ কিছু করেননি।

শামীমা বলেন, তিনি যদি কোনো অপরাধ করে থাকেন, সেটি হচ্ছে আইএসে যোগ দেওয়ার মতো বোকামি করা।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর