,

download (2)

১০ দিনের মধ্যে পদ্মায় চালু হতে পারে ফেরি: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

হাওর বার্তা ডেস্কঃ স্রোনিয়ন্ত্রণে এলে আগামী ১০ দিনের মধ্যে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে আবারও ফেরি চলাচল শুরু করতে পারবে বলে মন্তব্য করেছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। আজ বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মাওয়ায় এখনও ৪ নটিক্যাল মাইল বেগে স্রোত চলছে। এখনও অতিরিক্ত পানির প্রবাহ আছে এবং ক্রমেই বাড়ছে। স্রোতের গতি এর নিচে নামলে আমরা ফেরি চালু করব। এ অবস্থায় মাওয়া থেকে বাংলাবাজার যেতে সমস্যা না হলেও, বাংলাবাজার থেকে ফেরাটা খুব সমস্যা। স্রোতের গতি কমার আগে আমরা ঝুঁকি নিতে চাচ্ছি না।

পদ্মা সেতু: বার বার ফেরির ধাক্কা কি নাশকতা না দুর্ঘটনা? - BBC News বাংলাপ্রতিমন্ত্রী বলেন, আগে যখন ফেরিগুলো চলেছে তখন পদ্মা সেতুর স্প্যানগুলো বসানো ছিল না। কিন্তু এখন পদ্মা সেতু অলমোস্ট রেডি। ফলে একটা সুনির্দিষ্ট পকেটের মধ্য দিয়ে ফেরিগুলো চালাতে হয়। এমন অবস্থায় যখন ঘূর্ণায়নগুলো যখন শুরু হয় তখন কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করাটা কঠিন হয়ে যায়।

 

এ সময় বিকল্প ফেরিঘাট চালুর বিষয়ে খালিদ মাহমুদ বলেন, বিকল্প ফেরিঘাট আমরা মাঝিরকান্দিতে তৈরি করেছি। কিন্তু ১৩ নম্বর পিলারের ওখানে পলি জমে গেছে, বালু জমে গেছে, সেখানে ফেরি চলাচল সম্ভব না। আমরা দু-বার ট্রায়াল দিতে গিয়েও সেটি সম্ভব হয়নি, সেটা ড্রেজিং করতে হবে। ড্রেজার নিয়ে গিয়েছিলাম, পানির স্রোতের কারণে ড্রেজার টিকতে পারেনি। ড্রেজার নিতে গিয়ে আরেকটা ঝামেলা যদি হয়ে যায়। তাই এই মুহূর্তে আমরা ঝুঁকি নিতে চাচ্ছি না।

পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারে এবার 'কাকলি'র ধাক্কাএর আগে, পদ্মা নদীতে প্রবল স্রোতের কারণে গত ১৮ আগস্ট থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে অনির্দিষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি)। শিমুলিয়া ঘাটের সহকারি মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ সময় তিনি জানান, এর আগের এক সপ্তাহ ধরে দিনের বেলার শিমুলিয়া ও বাংলাবাজার নৌরুটে পাঁচটি ফেরি চলছিল। কিন্তু ১৮ আগস্ট বিকেল ৩টার পর পদ্মা নদীতে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ করা হয়েছে।
Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর