,

1629352802_AD-5

শিগগিরই আফগানিস্তানে ফিরবেন বলে জানালেন আশরাফ গানি

হাওর বার্তা ডেস্কঃ তালেবান যোদ্ধাদের হাতে পুরো আফগানিস্তানের দখল নেয়ার পর দেশ ছেড়ে পালিয়েছিলেন সাবেক আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গানি। মানবিকতার খাতিরে সপরিবার গনিকে আশ্রয় দেয়া হয়েছে বলে জানায় আমিরাত সরকার। এদিকে রক্তপাত এড়াতে দেশ ছেড়েছেন বলে ‘সাফাই’ দিয়েছিলেন গানি। এবার সাবেক আফগান এই প্রেসিডেন্ট জানালেন, দেশে থাকলে হয় তাকে পিটিয়ে মেরে ফেলত তালেবান। নইলে সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাজিবুল্লার মতো পরিণতি হতো তার। ল্যাম্পপোস্টে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দিত তালেবান। তবে চাপে পড়ে সাময়িক পিঠটান দিলেও, আফগানিস্তানে ফেরার তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন বলেও জানালেন দেশবাসীকে।
রোববার তালেবানের হাতে কাবুল ছেড়ে পালানোর পর গত তিন দিনে গানির খোঁজ পাওয়া যায়নি। শেষমেশ বুধবার জানা যায়, তিনি সংযুক্ত আমিরাতে রয়েছেন। মানবিকতার খাতিরে সপরিবার গনিকে আশ্রয় দেয়া হয়েছে বলে জানায় আমিরাত সরকার।
তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আফগানবাসীর উদ্দেশে ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেন গানি। ফেসবুকে ৯ মিনিটের ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘ক্ষমতার লোভে কাবুলকে সিরিয়া বা ইয়েমেন হতে দেয়া যাবে না। আমাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছে। ওখানে থাকলে রক্তপাত ঘটতই। হয় আমাকে পিটিয়ে মেরে ফেলত তালেবান। নইলে আর এক প্রেসিডেন্টকে ল্যাম্পপোস্টে ঝুলতে দেখতেন আফগানবাসী।’
কাবুল থেকে লাগেজ ভর্তি নগদ টাকা নিয়ে গনি পালিয়ে গিয়েছেন বলে এর আগে রাশিয়ার তরফে দাবি করা হয়েছিল। তা-ও উড়িয়ে দিয়েছেন গানি। বিমানবন্দরে শুল্ক দফতরের কড়া নিরাপত্তার বেড়াজাল পেরিয়ে তিনি আমিরাতে প্রবেশ করেছেন, সাথে টাকা থাকলে তা ধরা পড়ে যেত বলে দাবি করেছেন তিনি। গানির কথায়, ‘আমি শুধু পরনের কয়েকটা জামাকাপড় নিয়ে এসেছি। নিজের লাইব্রেরির একটা বই পর্যন্ত আনতে পারিনি।’ সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা ও আল জাজিরা।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর