,

19

আজও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়, তীব্র শৈতপ্রবাহের পূর্বাভাস

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ঘন কুয়াশা ও উত্তুরে হাওয়ায় উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। মাত্রাতিরিক্ত হারে কমে আসছে তাপমাত্রাও। এ জেলার আবারো তাপমাত্রা এক অঙ্কে নেমে এসেছে। শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। বৃহস্পতিবার ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও বুধবার ১২  দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় এ জেলায়।

বেশ কয়েকদিন ধরেই দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বিরাজ করছে এখানে। তাপমাত্রা কমে আসার সাথে সাথে বেড়েছে শীতের তীব্রতাও। এখন দিনের বেলাতে কখনো কখনো দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢেকে থাকছে পথ ঘাট। দুপুরে খানিক সময়ের জন্য সূর্যের উত্তাপ মিললেও বিকেল গড়াতেই তা কমে আসে। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে উত্তুরে হাওয়ার সাথে ঘন কুয়াশা পড়তে থাকে। কমে আসে তাপমাত্রাও। মাঝরাতে হাড়কাঁপা শীত অনুভূত হয়। শীতের কাঁপুনি থাকে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত। তবে সূর্যের দেখা মিললে বেলা বাড়ার সাথে সাথে কিছুটা উত্তাপও বাড়ে।

এদিকে শীতের প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে জেলার নিম্ন আয়ের মানুষের ভোগান্তিও বেড়েছে। সময়  মতো কাজে যেতে পারছেন না তারা। অনেকেই খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন। ঘন কুয়াশার কারণে দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে যানবাহনগুলো। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরকারিভাবে ২২ হাজার শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সিনিয়র আবহাওয়া পর্যবেক্ষক জিতেন্দ্রনাথ রায় বলেন, উত্তরে হিমালয় থেকে সরাসরি ঠান্ডা বাতাস পঞ্চগড়ের উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। তাই এখানে শীতের তীব্রতা একটু বেশি থাকে। তাপমাত্রা অনুযায়ী এখন পঞ্চগড়ের উপর দিয়ে মৃদু শৈত প্রবাহ বয়ে চলেছে। দিন দিন তাপমাত্রা আরো কমে আসবে। ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ বড় শৈতপ্রবাহের পূর্বাভাস রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর