,

25

অস্ট্রেলিয়ার একটি মিথ্যার জন্য লকডাউনে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তির মিথ্যা তথ্যের কারণে অস্ট্রেলিয়ার একটি রাজ্যে ছয় দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। বিষয়টি প্রকাশের পর দ্রুত লকডাউন প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

দুদিন আগে সাউথ অস্ট্রেলিয়া রাজ্য কর্তৃপক্ষ বাসিন্দাদের বাড়িতে থাকার এবং অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল। ভাইরাসটি অত্যন্ত সংক্রামক বিবেচনা করে রাজ্যজুড়ে কড়া লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

শুক্রবার সাউথ অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্টিভেন মার্শাল সংবাদ সম্মেলনে জানান, করোনা পজিটিভ শনাক্তের পর এক ব্যক্তি কন্টাক্ট ট্রেসারদের জানান, তিনি কেবল একটি দোকান থেকে পিৎজা কিনতে গিয়েছিলেন। এরপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এতো দ্রুত সময়ে করোনায় আক্রান্তের এই তথ্যে কর্তৃপক্ষ আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। তারা ভাইরাসটি অত্যান্ত সংক্রামক বিবেচনা করে রাজ্যজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা দেন। পরে জানা যায়, ওই ব্যক্তি আসলে খাবারের দোকানে কয়েক শিফটে কাজ করতেন। তার এক সহকর্মী করোনায় আক্রান্তের পর সেখান থেকে তিনি সংক্রমিত হন।

স্টিভেন মার্শাল বলেন, ‘এই লোকটি কন্টাক্টং ট্রেসিং টিমের কাছে সত্যবাদী হলে আমাদের হয়তো ছয় দিনের লকডাউনে যাওয়া লাগতো না। এই ব্যক্তির ছোট্ট কথায় যে পদক্ষেপ নেওয়া হলো তাতে আমি ক্ষুব্ধ। এই ব্যক্তির স্বার্থপর কাজের জন্য আমাদের পুরো রাজ্য জটিল একটি অবস্থায় পড়েছে।’ স্থানীয় সময় শনিবার মধ্যরাত থেকেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

মিথ্যা তথ্য দেওয়া ওই ব্যক্তির কী শাস্তি হতে পারে জানতে চাইলে পুলিশ কমিশনার গ্রান্ট স্টিভেনস জানান, বর্তমান আইনে কন্টাক্ট ট্রেসারদের সঙ্গে মিথ্যা কথা বলার শাস্তির বিধান নেই। তবে আইনটি পর্যালোচনা করা হতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর