ঢাকা ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আমি আপনাদের মিস করছি

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৭:৪১:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০১৫
  • ৪৯১ বার

কথাটি প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের। সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে অর্থনৈতিক মুক্তি। উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে বেকারত্ব দূর। এই ধারণা নিয়ে শান্তির দূত ছুটে গেছেন দেশ থেকে দেশে। স্বপ্ন ছড়িয়ে দিয়েছেন পৃথিবীর সর্বত্র। দেশে দেশে জনপ্রিয় হয়েছে সামাজিক ব্যবসা। জার্মানির বার্লিনে সপ্তম বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা শীর্ষক সম্মেলনের শুরুর দিনে অবশ্য উপস্থিত থাকতে পারলেন না প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস। শারীরিক অসুস্থতার কারণে শেষ মুহূর্তে সম্মেলনে যোগ দিতে পারেননি তিনি। তবে অসুস্থ অবস্থাতেও নিউইয়র্ক থেকে পাঠিয়েছেন ভিডিও বার্তা। যে বার্তায় তিনি বলেন, আমি সশরীরে আপনাদের পাশে উপস্থিত হতে পারিনি। তবে আত্মিকভাবে আমি আপনাদের পাশেই আছি। আমি আপনাদের মিস করছি। তিনি বলেন, সামাজিক ব্যবসার ধারণা সারা পৃথিবীতেই আলোড়ন তুলেছে। সপ্তম বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা শীর্ষ সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা একাডেমিশিয়ানরা অংশ নেন। বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, স্পেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা একাডেমিশিয়ানরা এ অধিবেশনে যোগ দেন। তারা সামাজিক ব্যবসা কর্মসূচি নিয়ে প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে সামাজিক ব্যবসা বিষয়টি পড়ানো হয়ে থাকে। দিনে দিনে এ বিষয়টি আরও বিপুল জনপ্রিয়তা লাভ করছে। বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা সম্মেলনে সামাজিক ব্যবসার প্র্যাকটিশনার এবং সমর্থকরা অংশ নিয়ে থাকেন। এবারের বার্লিন সম্মেলনে পৃথিবীর ৭০টি দেশের এক হাজারের বেশি বিশিষ্ট ব্যক্তি অংশগ্রহণ করছেন। যাদের মধ্যে প্রাইভেট সেক্টরের উদ্যোক্তা, সুশীল সমাজ ও সরকারের প্রতিনিধি এবং একাডেমিশিয়ানরা রয়েছেন। শান্তিতে নোবেল বিজয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস এবং তার সৃজনশীল উপদেষ্টা হেনস রীজ এ সম্মেলনের আয়োজন করেছেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

আমি আপনাদের মিস করছি

আপডেট টাইম : ০৭:৪১:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০১৫

কথাটি প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের। সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে অর্থনৈতিক মুক্তি। উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে বেকারত্ব দূর। এই ধারণা নিয়ে শান্তির দূত ছুটে গেছেন দেশ থেকে দেশে। স্বপ্ন ছড়িয়ে দিয়েছেন পৃথিবীর সর্বত্র। দেশে দেশে জনপ্রিয় হয়েছে সামাজিক ব্যবসা। জার্মানির বার্লিনে সপ্তম বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা শীর্ষক সম্মেলনের শুরুর দিনে অবশ্য উপস্থিত থাকতে পারলেন না প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস। শারীরিক অসুস্থতার কারণে শেষ মুহূর্তে সম্মেলনে যোগ দিতে পারেননি তিনি। তবে অসুস্থ অবস্থাতেও নিউইয়র্ক থেকে পাঠিয়েছেন ভিডিও বার্তা। যে বার্তায় তিনি বলেন, আমি সশরীরে আপনাদের পাশে উপস্থিত হতে পারিনি। তবে আত্মিকভাবে আমি আপনাদের পাশেই আছি। আমি আপনাদের মিস করছি। তিনি বলেন, সামাজিক ব্যবসার ধারণা সারা পৃথিবীতেই আলোড়ন তুলেছে। সপ্তম বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা শীর্ষ সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা একাডেমিশিয়ানরা অংশ নেন। বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, স্পেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা একাডেমিশিয়ানরা এ অধিবেশনে যোগ দেন। তারা সামাজিক ব্যবসা কর্মসূচি নিয়ে প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে সামাজিক ব্যবসা বিষয়টি পড়ানো হয়ে থাকে। দিনে দিনে এ বিষয়টি আরও বিপুল জনপ্রিয়তা লাভ করছে। বৈশ্বিক সামাজিক ব্যবসা সম্মেলনে সামাজিক ব্যবসার প্র্যাকটিশনার এবং সমর্থকরা অংশ নিয়ে থাকেন। এবারের বার্লিন সম্মেলনে পৃথিবীর ৭০টি দেশের এক হাজারের বেশি বিশিষ্ট ব্যক্তি অংশগ্রহণ করছেন। যাদের মধ্যে প্রাইভেট সেক্টরের উদ্যোক্তা, সুশীল সমাজ ও সরকারের প্রতিনিধি এবং একাডেমিশিয়ানরা রয়েছেন। শান্তিতে নোবেল বিজয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস এবং তার সৃজনশীল উপদেষ্টা হেনস রীজ এ সম্মেলনের আয়োজন করেছেন।