,

30

একুশের সাজ হোক মনোমুগ্ধকর

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বসন্তের মাস ফেব্রুয়ারি জুড়েই রয়েছে নানা আয়োজন। এর মধ্যে অন্যতম হলো আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ৮ ফাল্গুন, ১৩৫৯। দিনটি ছিল ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি।

ইতিহাসের লাল রঙে অর্জিত এ দিনটিকে পালন করা হয় কালো রং ধারণ করে। খালি পায়ে প্রভাতফেরি আর ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে শুরু হয় ভাষা দিবসের আয়োজন। একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে আমাদের গর্ব। তেমনি শহীদ দিবস হিসেবে আত্মত্যাগ ও শোকের। নিশ্চয় এ দিনটি নিয়ে আপনারও রয়েছে নানা পরিকল্পনা! কী পোশাক পরবেন, কীভাবে সাজবেন তা নিয়ে ভেবেছেন কিছু?  দম্পতিদের একজন সাদা ও অন্যজন কালো পোশাক পরতে পারেন

এদিন সাদা পাড়ে কালো শাড়ি বা সাদা কালো কামিজ পরতে পারেন। আর ছেলেরা পরতে পারেন কালো পাঞ্জাবি বা টি-শার্ট। এক্ষেত্রে বিভিন্ন বর্ণমালা বা গান কবিতার লাইন লেখা শাড়ি বা পাঞ্জাবি বেছে নিতে পারেন।

তবে ডিজাইন যাই হোক রঙের ক্ষেত্রে সাদা-কালোকে প্রাধান্য দেয়াই উত্তম। সাদা কালো ছাড়াও কালোর সঙ্গে লালের মিশ্রণও বিগত বছরগুলোতে চোখে পরছে। দেশের বিভিন্ন বুটিক হাউজগুলোর ডিজাইনাররা কাল রঙের সঙ্গে সাদা আর লাল দু’টি রংকেই এবার প্রাধান্য দিয়েছেন। শিশুদের পোশা

এছাড়াও সবুজ, হলুদ, নীল এসব রঙেও সাজছে একুশের পোশাক। কাপড়ের ক্ষেত্রে বেছে নিতে পারেন সুতি, তাঁত, মসলিন বা সিল্ক। বর্তমানের আবহাওয়ার সঙ্গে এসব কাপড় বেশ আরামদায়ক হবে। শিশুরাই বা বাদ থাকবে কেন? তাদের পোশাকেও ডিজাইনাররা নানা রঙে ফুটিয়ে তুলেছেন বাংলা বর্ণমালার আন্দোলনের ইতিহাস। একুশের সাজে লাল রঙের পোশাকেরও চল বাড়ছে

নারীরা শাড়ির সঙ্গে সাদামাটা খোঁপা করতে পারেন। সাজের ক্ষেত্রে চোখে কালো আইশ্যাডো আর কাজল লাগিয়ে নিন। ন্যুড কালারের লিপস্টিক ব্যবহার করুন।  হাতে পরে নিন কাঠের, সুতার বা কাঁচের কালো চুড়ি। কপালে কালো একটি টিপ দিলেও কিন্তু মন্দ দেখাবে না। ছেলেরা পাঞ্জাবির সঙ্গে মাথায় বেঁধে নিতে পারেন বর্ণমালা লেখা রুমাল। হাতে ব্রেসলেটও পরতে পারেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর