ঢাকা ০৭:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কঙ্গনাকে থাপ্পড় মারা নারী কনস্টেবলের জন্য পুরস্কার ঘোষণা

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:৫৩:৫২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
  • ১২ বার

ভারতের নবনির্বাচিত বিজেপি-দলীয় এমপি ও অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের গালে থাপ্পড় মেরে গ্রেফতার হওয়া সেই সিআইএসএফের নারী কনস্টেবল কুলবিন্দর কৌরের জন্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।  তার জন্য ১ লাখ রুপি পুরস্কার ঘোষণা করেছেন শিবরাজ সিং বাইনস নামে মোহালির এক ব্যবসায়ী। তিনি জানান, থাপ্পড়কাণ্ডে অভিযুক্তকে নারীকে ১ লাখ রুপি পুরস্কার দেবেন। ইতোমধ্যে বিষয়টি নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়।

শুধু তাই নয়, একটি ভিডিও শেয়ার করে কুলবিন্দরকে কুর্নিশও জানান ওই ব্যবসায়ী। পাশাপাশি পাঞ্জাবের সংস্কৃতি এবং মানুষের ভাবাবেগকে বাঁচানোর জন্য ওই সিআইএসএফের কনস্টেবলের প্রশংসাও করেন তিনি।

শের সিং মাহিওয়াল কুলবিন্দরের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে তার ভাই হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন।  তিনি বলেন, বোনকে পুরোপুরি সমর্থন করি। এমনকি সামাজিক যোগাযোগ ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে ওই কনস্টেবলের ভাই হিসেবে বক্তব্যও রাখতে শোনা যায় তাকে।

বিমানবন্দরে কঙ্গনা মারার ঘটনার পর কুলবিন্দরের বিরুদ্ধে এফআইআর হয়। কোর্ট অব এনকোয়ারির নির্দেশ দেয় সিআইএসএফ। এরই মধ্যে শের সিং মাহিওয়াল জানান, ওকে এ বিষয়ে সম্পূর্ণ সমর্থন করি। এই ব্যক্তি কপুরথালায় কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির অর্গানাইজেশন সেক্রেটারি বলে জানা গেছে।

এক ভিডিও বার্তায় কঙ্গনা বলেন, তিনি সংবাদমাধ্যম ও শুভানুধ্যায়ীদের অনেকের কাছ থেকে প্রচুর ফোন পাচ্ছেন। ওই নারী কনস্টেবল আমার দিকে এগিয়ে এসে মুখে আঘাত করেন এবং আমাকে নিপীড়ন করতে শুরু করেন। কারণ জিজ্ঞাসা করতে তিনি (নারী কনস্টেবল) বলেন, যে তিনি কৃষক আন্দোলন সমর্থন করেন।’

কঙ্গনা আরও বলেন, ‘আমি নিরাপদ আছি। কিন্তু আমি উদ্বিগ্ন যে পাঞ্জাবে সন্ত্রাস বাড়ছে…কীভাবে আমরা এটা সামলাব?’

কঙ্গনাকে হেনস্থা করার বিষয়ে ওই নারী কনস্টেবল বলেন, ‘কঙ্গনা বলেছিলেন যে কৃষকেরা দিল্লিতে বিক্ষোভ করছেন; কারণ- তাদের ১০০ বা ২০০ রুপি করে দেওয়া হয়েছিল। সেই বিক্ষোভকারীদের একজন ছিলেন আমার মা। এজন্য মায়ের সম্মান রক্ষায় সে এমন কাজ করেছে।’

এদিকে কঙ্গনাকে থাপ্পড়ের ঘটনায় কুলিন্দর কৌরকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে একটি মামলাও দায়ের হয়েছে। বিমানবন্দরে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করা সিআইএসএফ এ ঘটনা তদন্তেরও পদক্ষেপ নিয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

কঙ্গনাকে থাপ্পড় মারা নারী কনস্টেবলের জন্য পুরস্কার ঘোষণা

আপডেট টাইম : ১০:৫৩:৫২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

ভারতের নবনির্বাচিত বিজেপি-দলীয় এমপি ও অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের গালে থাপ্পড় মেরে গ্রেফতার হওয়া সেই সিআইএসএফের নারী কনস্টেবল কুলবিন্দর কৌরের জন্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।  তার জন্য ১ লাখ রুপি পুরস্কার ঘোষণা করেছেন শিবরাজ সিং বাইনস নামে মোহালির এক ব্যবসায়ী। তিনি জানান, থাপ্পড়কাণ্ডে অভিযুক্তকে নারীকে ১ লাখ রুপি পুরস্কার দেবেন। ইতোমধ্যে বিষয়টি নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়।

শুধু তাই নয়, একটি ভিডিও শেয়ার করে কুলবিন্দরকে কুর্নিশও জানান ওই ব্যবসায়ী। পাশাপাশি পাঞ্জাবের সংস্কৃতি এবং মানুষের ভাবাবেগকে বাঁচানোর জন্য ওই সিআইএসএফের কনস্টেবলের প্রশংসাও করেন তিনি।

শের সিং মাহিওয়াল কুলবিন্দরের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে তার ভাই হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন।  তিনি বলেন, বোনকে পুরোপুরি সমর্থন করি। এমনকি সামাজিক যোগাযোগ ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে ওই কনস্টেবলের ভাই হিসেবে বক্তব্যও রাখতে শোনা যায় তাকে।

বিমানবন্দরে কঙ্গনা মারার ঘটনার পর কুলবিন্দরের বিরুদ্ধে এফআইআর হয়। কোর্ট অব এনকোয়ারির নির্দেশ দেয় সিআইএসএফ। এরই মধ্যে শের সিং মাহিওয়াল জানান, ওকে এ বিষয়ে সম্পূর্ণ সমর্থন করি। এই ব্যক্তি কপুরথালায় কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির অর্গানাইজেশন সেক্রেটারি বলে জানা গেছে।

এক ভিডিও বার্তায় কঙ্গনা বলেন, তিনি সংবাদমাধ্যম ও শুভানুধ্যায়ীদের অনেকের কাছ থেকে প্রচুর ফোন পাচ্ছেন। ওই নারী কনস্টেবল আমার দিকে এগিয়ে এসে মুখে আঘাত করেন এবং আমাকে নিপীড়ন করতে শুরু করেন। কারণ জিজ্ঞাসা করতে তিনি (নারী কনস্টেবল) বলেন, যে তিনি কৃষক আন্দোলন সমর্থন করেন।’

কঙ্গনা আরও বলেন, ‘আমি নিরাপদ আছি। কিন্তু আমি উদ্বিগ্ন যে পাঞ্জাবে সন্ত্রাস বাড়ছে…কীভাবে আমরা এটা সামলাব?’

কঙ্গনাকে হেনস্থা করার বিষয়ে ওই নারী কনস্টেবল বলেন, ‘কঙ্গনা বলেছিলেন যে কৃষকেরা দিল্লিতে বিক্ষোভ করছেন; কারণ- তাদের ১০০ বা ২০০ রুপি করে দেওয়া হয়েছিল। সেই বিক্ষোভকারীদের একজন ছিলেন আমার মা। এজন্য মায়ের সম্মান রক্ষায় সে এমন কাজ করেছে।’

এদিকে কঙ্গনাকে থাপ্পড়ের ঘটনায় কুলিন্দর কৌরকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে একটি মামলাও দায়ের হয়েছে। বিমানবন্দরে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করা সিআইএসএফ এ ঘটনা তদন্তেরও পদক্ষেপ নিয়েছে।