বিচ্ছেদের পর ‘এক থা টাইগার’ সিনেমার কাজে ‘স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেননি’ সালমান-ক্যাট

একসময় আলোচনার তুঙ্গে ছিল বলিউডের দুই জনপ্রিয় তারকা সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফের প্রেমের বিষয়টি। সম্পর্কে থাকাবস্থায়ই এই জুটি ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়ুন কিয়া’ এবং ‘পার্টনার’ র মত ভারতের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে উপহার দিয়েছেন বিখ্যাত সব চলচ্চিত্র। খবর:এনডিটিভির

২০১২ সালেও এই জুটির অভিনিত ‘এক থা টাইগার’ চলচ্চিত্রটি হয়েছিল ব্লকবাস্টার ।  তবে এই চলচ্চিত্রটি মুক্তির ১১ বছরেরও বেশি সময় পর তা নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন ‘এক থা টাইগারের’ পরিচালক কবির খান।
সালমান এবং ক্যাটরিনার প্রেমের সম্পর্ক ভাঙনের পর ঠিক পরপর দুজনকে একই চলচ্চিত্রে কাস্ট করা কতটা কঠিন ছিল সে সম্পর্কে জানিয়েছেন তিনি। কাস্টিং ডিরেক্টর মুকেশ ছাবরার আসন্ন টক শো দ্য বম্বে ড্রিমসের প্রোমোতে সম্প্রতি কবির খান বলেছেন, নির্মাতারা সালমান খানের কাছে যাওয়ার আগেই জোয়া চরিত্রের জন্য ক্যাটরিনাকে চুক্তিবদ্ধ করেছিলেন। এরপর টাইগার ওরফে অবিনাশ সিং রাঠোরের নাম ভূমিকার জন্য সালমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তবে দুজনকে কাস্টিংয়ের পর তারা ‘ততটা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেননি’ বলে জানান কবির খান।

বলেন, ‘ক্যাটরিনা আগেই এই চলচ্চিত্রে জোয়া চরিত্রের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন।  এরপর আমরা সালমানের কাছে যাই।  বিচ্ছেদের পরপরই একই চলচ্চিত্রে শুটিংয়েরব্যাপারেতারা ততটা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছিলেন না। ‘

২০১০ সালে ক্যাটরিনা কাইফ এবং সালমান খানের প্রেমের বিচ্ছেদ ঘটেছিল। এরপর ২০১১ সালে ক্যাটরিনা কসমোপলিটন ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সালশান খানের সঙ্গে তার একটি গভীর সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন। যদিও তখন ‘এক থা টাইগারের’ শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন এই দুই তারকা।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর