শাহরুখকে ভারতের ‘জাতীয় সম্পদ’ ঘোষণার দাবি

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বলিউডের ‘বাদশাহ’খ্যাত অভিনেতা শাহরুখ খান। তবে তিনি ফুরিয়ে গিয়েছেন বলে দাবি উঠছিল গত কয়েক বছর ধরেই। কিন্তু চলতি বছরে প্রথমে ‘পাঠান’ এবং তার পর ‘জওয়ান’, বাদশার কোনো বিকল্প নেই বলে ফের প্রমাণ করলেন শাহরুখ খান।

বর্তমানে বক্সঅফিস দাপিয়ে বেড়াচ্ছে শাহরুখের নতুন সিনেমা ‘জওয়ান’। শাহরুখ জ্বরে কাবু ভক্ত থেকে শুরু করে সমালোচকরাও। ‘জওয়ান’ জ্বর থেকে বাদ গেলেন না ভারতের শিল্পপতি আনন্দ মাহিন্দ্রাও। শাহরুখকে ভারতের ‘জাতীয় সম্পদ’ ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এবিপি আনন্দের খবরে বলা হয়েছে, দুবাইয়ে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে শাহরুখের উপস্থিতি ঘিরে উন্মাদনার ভিডিও শুক্রবার ‘এক্স’-এ (সাবেক নাম টুইটার) পোস্ট করেন আনন্দ। তাতে তিনি লেখেন, ‘প্রত্যেক দেশ নিজের প্রাকৃতিক খনিজ সম্পদকে আগলে রাখে। খনন করে তা তুলে রপ্তানি করে বিদেশে, যাতে সঞ্চিত বিদেশি মুদ্রার ভাঁড়ার ফুলে ফেঁপে ওঠে। এবার হয়তো শাহরুখ খানকে জাতীয় সম্পদ ঘোষণার সময় এসেছে।’

আনন্দের এই পোস্টের জবাব দিতে দেরি করেননি শাহরুখ। প্রত্যুত্তরে তিনি লেখেন, ‘অসংখ্য ধন্যবাদ। ছোট ছোট প্রচেষ্টার মাধ্যমে, সিনেমা তৈরি করে দেশমাতৃকাকে গর্ববোধ করানোর চেষ্টা চালিয়ে যাই আমি। আশাকরি ‘জাতীয় সম্পদ’ হিসেবে আমি সীমিত নই। ভালোবাসা গ্রহণ করবেন স্যার।’

এর আগেও শাহরুখকে প্রশংসায় ভাসিয়েছিলেন আনন্দ। ‘জিন্দা বান্দা’ গানটি মুক্তি পাওয়ার পর পোস্ট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেবার আনন্দ লেখেন, ‘এই নায়কের বয়স ৫৭ বছর। শাহরুখের বয়স বৃদ্ধি মাধ্যাকর্ষণ শক্তিকেও মানে না। বহু মানুষের চেয়ে ১০ গুণ বেশি স্বতস্ফূর্ত। জিন্দা বান্দা হো তো অ্যায়সা।’

‘জওয়ান’কে ঘিরে এই উন্মাদনা, উচ্ছ্বাস, সিনেমার ব্যবসাও বাড়িয়ে দিয়েছে  প্রথম দিনেই শুধু ভারতের মধ্যে হিন্দি ভাষায় সিনেমাটি ব্যবসা করেছে ৬৫ কোটি রুপির। কোনো হিন্দি সিনেমা এই রেকর্ড গড়তে পারেনি এতদিন। তামিল ও তেলেগু ডাবিং থেকে আয়ের খাতায় যোগ হয়েছে আরো ৯ কোটি ‍রুপি, অর্থাৎ সবমিলিয়ে ৭৪ কোটি রুপির ব্যবসা হয় প্রথম দিনে। দুই দিনে হিন্দি ভাষায় ‘জওয়ান’ ব্যবসা করেছে ১১১ কোটি রুপি। সবমিলিয়ে ১২৫.৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে ভারতে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর