ঢাকা ১০:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচনে একমাত্র নারী প্রার্থী লাজুক

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:৫৬:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩
  • ১০৫ বার

ডিরেক্টরস গিল্ড’র নির্বাচন আগামী ১০ মার্চ (শুক্রবার)। ৪২ জন প্রার্থীর মধ্যে এবার একমাত্র নারী প্রার্থী অভিনেত্রী, নাট্যকার ও নির্মাতা রাশেদা আক্তার লাজুক। বিগত নির্বাচনে এমনটি দেখা যায়নি বললেই চলে। তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে। সদা হাসিখুশি সহজ সরল এই মানুষটি এর আগেও নির্বাচিত হয়েছিলেন, অর্জন করেছিলেন সবার ভালোবাসা। সদস্যদের প্রতি ভালোবাসা এবং সংগঠনের জন্য কিছু একটা করার দায়বদ্ধতা থেকেই লাজুক, এস এ হক অলিক-ফরিদুল হাসান প্যানেল থেকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করছেন।

কেন নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন জানতে চাইলে লাজুক বলেন, ‘এবারই প্রথম নয়, এর আগেও ডিরেক্টরস গিল্ড’র কমিটিতে কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। পরে আর নির্বাচন করা হয়নি। তবে এবার উপলব্ধি করেছি আমার আবারও নির্বাচনে অংশ নেয়া উচিত। নির্মাতাদের উন্নয়ন, সংগঠনকে এগিয়ে নেওয়া ও সার্বিক বিষয় বিবেচনা করেই আমি প্রার্থী হয়েছি। নির্মাতাদের কল্যাণে কাজ করার সুযোগ চাই। পরিচালক হচ্ছে ক্যাপ্টেন অব দ্যা শিপ। সেই ক্যাপ্টেনই তো নিরাপদ গন্তব্যে নিয়ে যাবেন। সেই পরিচালকদের স্বার্থ সংরক্ষণ, সম্মান এবং কাজের স্বাধীনতার জন্য এ নির্বাচনে আসা। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। কারণ সদস্যরা আমাকে ভালোবাসেন, তার প্রমাণ আমি বিগত দিনে পেয়েছি।’

যোগ করে তিনি বলেন, ‘আমার দৃষ্টিতে একজন পরিচালকই প্রকৃত হিরো। কাজের ক্ষেত্রে সকল শিল্পী ও কলাকুশলীরা নির্মাতার অলংকার মাত্র। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি আমরা সেই জায়গাটা হারিয়ে ফেলেছি। আমার শ্বশুর চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেনসহ সে সময়ের গুণী নির্মাতারা সবাইকে সঙ্গে নিয়ে দাপটের সঙ্গে কাজ করত। আমি নির্বাচিত হলে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নির্মাতাদের সেই অবস্থান ফিরিয়ে আনব। আমি পরিচালকের পূর্ণ স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সংগঠনকে এগিয়ে নেব।’

উল্লেখ্য, উল্লেখ্য, ১৯৯৪ সালে চাষী নজরুল ইসলামের পরিচালনায় ‘আজকের প্রতিবাদ’ সিনেমার মাধ্যমে শোবিজে আত্মপ্রকাশ করেন লাজুক। এরপর অভিনয় ও নির্মাণে নিজেকে মেলে ধরেছেন তিনি। বর্তমানে তিনি ‘টু-লেট: বাসা ভাড়া হবে’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ করছেন। কিছুদিন আগেই শেষ হয়েছে তার নির্মিত তারকাবহুল ধারাবাহিক ‘পরিবার’র প্রচার।

ব্যক্তিগত পরিচয়ে তিনি কিংবদন্তি নির্মাতা আমজাদ হোসেনের বড় সন্তান প্রযোজক, নির্মাতা ও অভিনেতা সাজ্জাদ হোসেন দোদুলের স্ত্রী।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচনে একমাত্র নারী প্রার্থী লাজুক

আপডেট টাইম : ১০:৫৬:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩

ডিরেক্টরস গিল্ড’র নির্বাচন আগামী ১০ মার্চ (শুক্রবার)। ৪২ জন প্রার্থীর মধ্যে এবার একমাত্র নারী প্রার্থী অভিনেত্রী, নাট্যকার ও নির্মাতা রাশেদা আক্তার লাজুক। বিগত নির্বাচনে এমনটি দেখা যায়নি বললেই চলে। তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে। সদা হাসিখুশি সহজ সরল এই মানুষটি এর আগেও নির্বাচিত হয়েছিলেন, অর্জন করেছিলেন সবার ভালোবাসা। সদস্যদের প্রতি ভালোবাসা এবং সংগঠনের জন্য কিছু একটা করার দায়বদ্ধতা থেকেই লাজুক, এস এ হক অলিক-ফরিদুল হাসান প্যানেল থেকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করছেন।

কেন নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন জানতে চাইলে লাজুক বলেন, ‘এবারই প্রথম নয়, এর আগেও ডিরেক্টরস গিল্ড’র কমিটিতে কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। পরে আর নির্বাচন করা হয়নি। তবে এবার উপলব্ধি করেছি আমার আবারও নির্বাচনে অংশ নেয়া উচিত। নির্মাতাদের উন্নয়ন, সংগঠনকে এগিয়ে নেওয়া ও সার্বিক বিষয় বিবেচনা করেই আমি প্রার্থী হয়েছি। নির্মাতাদের কল্যাণে কাজ করার সুযোগ চাই। পরিচালক হচ্ছে ক্যাপ্টেন অব দ্যা শিপ। সেই ক্যাপ্টেনই তো নিরাপদ গন্তব্যে নিয়ে যাবেন। সেই পরিচালকদের স্বার্থ সংরক্ষণ, সম্মান এবং কাজের স্বাধীনতার জন্য এ নির্বাচনে আসা। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। কারণ সদস্যরা আমাকে ভালোবাসেন, তার প্রমাণ আমি বিগত দিনে পেয়েছি।’

যোগ করে তিনি বলেন, ‘আমার দৃষ্টিতে একজন পরিচালকই প্রকৃত হিরো। কাজের ক্ষেত্রে সকল শিল্পী ও কলাকুশলীরা নির্মাতার অলংকার মাত্র। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি আমরা সেই জায়গাটা হারিয়ে ফেলেছি। আমার শ্বশুর চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেনসহ সে সময়ের গুণী নির্মাতারা সবাইকে সঙ্গে নিয়ে দাপটের সঙ্গে কাজ করত। আমি নির্বাচিত হলে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নির্মাতাদের সেই অবস্থান ফিরিয়ে আনব। আমি পরিচালকের পূর্ণ স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সংগঠনকে এগিয়ে নেব।’

উল্লেখ্য, উল্লেখ্য, ১৯৯৪ সালে চাষী নজরুল ইসলামের পরিচালনায় ‘আজকের প্রতিবাদ’ সিনেমার মাধ্যমে শোবিজে আত্মপ্রকাশ করেন লাজুক। এরপর অভিনয় ও নির্মাণে নিজেকে মেলে ধরেছেন তিনি। বর্তমানে তিনি ‘টু-লেট: বাসা ভাড়া হবে’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ করছেন। কিছুদিন আগেই শেষ হয়েছে তার নির্মিত তারকাবহুল ধারাবাহিক ‘পরিবার’র প্রচার।

ব্যক্তিগত পরিচয়ে তিনি কিংবদন্তি নির্মাতা আমজাদ হোসেনের বড় সন্তান প্রযোজক, নির্মাতা ও অভিনেতা সাজ্জাদ হোসেন দোদুলের স্ত্রী।