ঢাকা ০১:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাতিরঝিলের সৌন্দর্য বর্ধনই ৩০০ হাঁস ছাড়ার প্রধান উদ্দেশ্য: রাজউক চেয়ারম্যান

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১২:৫৮:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৯৫ বার

হাতিরঝিলের সৌন্দর্য বর্ধনের লক্ষ্যেই ৩০০ হাঁস ছাড়ার প্রধান উদ্দেশ্য। যারা হাতিরঝিলে ঘুরতে আসবেন, কিংবা নৌকায় চলাচল করেন, তারা এই সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন রাজউক চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান মিঞা।

মঙ্গলবার সকালে হাতিরঝিলের পুলিশ প্লাজা সংলগ্ন দ্বীপ থেকে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে জীববৈচিত্র্য রক্ষার লক্ষ্যে অবমুক্ত করা হয়েছে ৩০০ হাঁস।

মো. আনিছুর রহমান মিঞা বলেন, এসব হাঁসের সঠিক তদারকির জন্য আমাদের জনবলও রয়েছে। আশা করছি এর সুফল মিলবে। এবং হাঁস রক্ষণাবেক্ষণের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পানির দুর্গন্ধ দূরীকরণসহ হাতিরঝিলে এ ধরনের আরও নানা উদ্যোগ নিয়েছি আমরা।

হাতিরঝিলের পানিতে হাঁস ছাড়া সম্পর্কে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও কীটতত্ত্ববিদ কবিরুল বাশার বলেন, হাতিরঝিল লেকের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য এই হাঁস অবমুক্ত করা হলে ঠিক আছে। কারণ লেকটি অনেক বড়। তবে হাঁস টিকাতে হলে এর সঠিক তত্ত্বাবধান রাখতে হবে। তা নাহলে এসব হাঁস চুরি হয়ে যাবে। কারণ আমরা পূর্বে দেখেছি রাজধানীর বিভিন্ন লেকে হাঁস অবমুক্ত করা হাঁস উধাও হয়ে গিয়েছিল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

হাতিরঝিলের সৌন্দর্য বর্ধনই ৩০০ হাঁস ছাড়ার প্রধান উদ্দেশ্য: রাজউক চেয়ারম্যান

আপডেট টাইম : ১২:৫৮:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

হাতিরঝিলের সৌন্দর্য বর্ধনের লক্ষ্যেই ৩০০ হাঁস ছাড়ার প্রধান উদ্দেশ্য। যারা হাতিরঝিলে ঘুরতে আসবেন, কিংবা নৌকায় চলাচল করেন, তারা এই সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন রাজউক চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান মিঞা।

মঙ্গলবার সকালে হাতিরঝিলের পুলিশ প্লাজা সংলগ্ন দ্বীপ থেকে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে জীববৈচিত্র্য রক্ষার লক্ষ্যে অবমুক্ত করা হয়েছে ৩০০ হাঁস।

মো. আনিছুর রহমান মিঞা বলেন, এসব হাঁসের সঠিক তদারকির জন্য আমাদের জনবলও রয়েছে। আশা করছি এর সুফল মিলবে। এবং হাঁস রক্ষণাবেক্ষণের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পানির দুর্গন্ধ দূরীকরণসহ হাতিরঝিলে এ ধরনের আরও নানা উদ্যোগ নিয়েছি আমরা।

হাতিরঝিলের পানিতে হাঁস ছাড়া সম্পর্কে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও কীটতত্ত্ববিদ কবিরুল বাশার বলেন, হাতিরঝিল লেকের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য এই হাঁস অবমুক্ত করা হলে ঠিক আছে। কারণ লেকটি অনেক বড়। তবে হাঁস টিকাতে হলে এর সঠিক তত্ত্বাবধান রাখতে হবে। তা নাহলে এসব হাঁস চুরি হয়ে যাবে। কারণ আমরা পূর্বে দেখেছি রাজধানীর বিভিন্ন লেকে হাঁস অবমুক্ত করা হাঁস উধাও হয়ে গিয়েছিল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা।