,

366386-salmankhancover

সালমান খানকে হত্যা করতে রাইফেল কিনেছিলেন বিষ্ণোই

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বলিউড তারকা সালমান খানকে খুন করতে চেয়েছিল গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। এরইমধ্যে পুলিশি জেরায় এ বিষয়ে স্বীকারোক্তি দিয়েছে সে। গায়ক ও কংগ্রেস নেতা সিধু মুসওয়ালা খুনের ঘটনায় স্বীকারোক্তি দিয়েছে এই গ্যাংস্টার। সেই স্বীকারোক্তিতে ভয়াবহ তথ্য দিয়েছে বিষ্ণোই। ২০১৮ সালে বলিউড অভিনেতা সালমান খানকে হত্যা করতে নাকি ৪ লাখ টাকা দিয়ে রাইফেলও কিনেছিল সে।

১৯৯৮ সালে রাজস্থানের জোধপুরে কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেন সালমান খান। দিল্লি পুলিশ সূত্রে খবর, সেই ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই সালমানকে খুন করতে চেয়েছিল লরেন্স। তার জন্য ২০১৮ সালে চার লাখ টাকা দিয়ে একটি রাইফেলও কিনেছিল।

স্বীকারোক্তিতে পাঞ্জাবের এই গ্যাংস্টার জানিয়েছে, এর আগেও সালমানকে হত্যার জন্য সে তার শাগরেদ সম্পত নেহরাকে নির্দেশ দিয়েছিল। তবে সালমানের প্রাণহানির আশঙ্কা জোরালো হতেই শুরু হয় তদন্ত। গা ঢাকা দেয় সম্পত।

পুলিশের দাবি, সালমানকে খুনের জন্য মুম্বাই গিয়েছিল সম্পত। সালমানের বাড়ির আশপাশে ঘুরে দেখে সে। সম্পতের কাছে ছিল পিস্তল। সামনে থেকেই সালমানের উপরে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল সে। তবে সেই সুযোগ মেলেনি। তাই দূর থেকে সালমানের উপরে হামলা চালাতে লরেন্স দীনেশ ডাগর নামে এক ব্যক্তির থেকে চার লাখ টাকার বিনিময়ে একটি আরকে স্প্রিং রাইফেল কিনেছিল।

বিষ্ণোই পুলিশকে জানিয়েছে, সালমান খানকে মারার জন্য সম্পত নেহরা মুম্বাই যান এবং অভিনেতার বাড়ি রেইকি করতে শুরু করেন। কিন্তু সম্পতের কাছে শুধু পিস্তল ছিল এবং দূর থেকে মারা যাবে এমন কোনো আগ্নেয়াস্ত্র ছিল না, যা দিয়ে সালমান খানের ওপর দূর থেকে হামলা করা যাবে।

এরপর দীনেশ দাগার নামে এক ব্যক্তির মাধ্যমে গ্যাংস্টার আরকে স্প্রিং রাইফেল অর্ডার করে, যার দাম ৪ লাখ টাকা। এ রাইফেলটি পরে ২০১৮ সালে দাগারের কাছ থেকে উদ্ধার হয়।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর