,

download

ভারতে জনপ্রিয় পাঞ্জাবি গায়ককে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ভারতের জনপ্রিয় পাঞ্জাবি গায়ক ও কংগ্রেস নেতা সিধু মুসওয়ালাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। রবিবার পাঞ্জাবের মানসা জেলার জওহরকে গ্রামে অজ্ঞাত আততায়ীর হাতে গুলিবিদ্ধ হন তিনি। এসময় তাকে দ্রুত উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সিধু। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিন ব্যক্তি। একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, মানসা জেলার জাওয়াহারকে এলাকা সিধুর উপর আক্রমণ করা হয়। সেসময় কমপক্ষে ৩০ রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়। ঘটনাস্থলেই মারা গিয়েছেন সিধু।

 ভারতের অন্য আরেক সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, রোববার (২৯ মে) পাঞ্জাবের মানসা জেলায় প্রকাশ্য দিবালোকে সিধুকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনি ছাড়াও আরো দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদিন সকালে দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে গাড়ি চালিয়ে পাঞ্জাবের মনসায় যাওয়ার সময় বন্দুকধারীদের হামলার শিকার হন সিধু।

জানা গেছে, এই গায়কের পুরো নাম শুভদীপ সিং সিধু। তবে তিনি শ্রোতাদের কাছে সিধু মুসে ওয়ালা নামে পরিচিতি। গায়ক, গীতিকার, র‍্যাপার ও অভিনেতা সিধু জড়িত ছিলেন রাজনীতির সঙ্গেও। ২০২২ সালের পাঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের হয়ে লড়েছিলেন সিধু। আম আদমি পার্টির প্রার্থীর কাছে ৬৩ হাজারের কাছাকাছি ভোটে পরাজিত হন তিনি। হেরে যাওয়ার পর আম আদমি পার্টির ভোটদাতাদের তিনি ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে দাবি করে গান বাঁধেন।

নির্বাচনের পর সিধুসহ ৪২৪ জন ভিআইপি’র আলাদা করে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে রাজ্য সরকার। শনিবারই ৪২৪ জন ব্যক্তির থেকে নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে পাঞ্জাব পুলিশ। নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার একদিনের মধ্যেই গুলিতে নিহত হলেন তিনি। পাঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের টিকিটে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। ৬৩ হাজার ভোটের ব্যবধানে আপ-র) প্রতিদ্বন্দ্বীর কাছে পরাজিতও হয়েছিলেন তিনি।

গত মাসে খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন সিধু মুজওয়ালা। আম আদমি পার্টিকে কটাক্ষ করে একটি গান তৈরি করেছিলেন তিনি। গানের নাম স্কেপগোট। গানে আম আদমি পার্টির সাপোর্টারদের বিশ্বাসঘাতক বলে অভিহিত করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন সিধু মুজওয়ালা। গানের মাধ্যমে বেশ কিছু সম্প্রদায়কে বারবার ক্ষিপ্ত করেছিলেন বলে, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর