,

278006303_530904611780497_7

বাংলাদেশের দীর্ঘ সময়ের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মেয়াদে অভিষিক্তের চার বছর আজ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বিশিষ্ট রাজনীতিক ও পার্লামেন্টারিয়ান মো. আবদুল হামিদ ২০১৮ সালের এদিনে দ্বিতীয় মেয়াদে দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ২৪ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় বঙ্গভবনের দরবার হলে আনুষ্ঠানিকভাবে রাষ্ট্রপতিকে শপথ বাক্য পাঠ করান।
আবদুল হামিদই এ যাবৎকালে টানা ৯ বছর দায়িত্ব পালনের মধ্যদিয়ে দেশের ইতিহাসে অন্যূন রেকর্ড গড়েছেন।
রাষ্ট্রপতি আইন ১৯৯১ এর ৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার রাষ্ট্রপতি পদে অন্যকোন প্রার্থী না পাওয়ায় ওই বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি মো. আবদুল হামিদকে দ্বিতীয় মেয়াদে বাংলাদেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করেন।
১৯৯১ সালে দেশে সংসদীয় গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হলে মাত্র একবার সংসদ সদস্যদের ভোটে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। এরপর থেকে বরাবরই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অন্যরা রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়েছেন।
প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৪ মার্চ তদানীন্তন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান অসুস্থ হয়ে সিঙ্গাপুর যাওয়ার পর সাংবিধানিক ধারাবাহিকতায় ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি হিসেবে স্পিকার আবদুল হামিদ দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। তার মৃত্যুর পর, আব্দুল হামিদ একই বছরের ২০ মার্চ অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি হন।
আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দীর্ঘকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন আব্দুল হামিদ দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপ্রধান হয়ে এক নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেন।
বঙ্গভবনের একজন মুখপাত্র জানান, স্বাধীনতার পর আব্দুল হামিদ সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। স্বাধীনতার পর থেকে ১৬ জন ব্যক্তি ১৯ মেয়াদে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আব্দুল হামিদ রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালনকারী ১৭তম ব্যক্তি।
তার পিতা প্রয়াত হাজি মোহাম্মাদ তায়েবুদ্দিন ও মাতা তমিজা খাতুন। তিনি ১৯৪৪ সালের ১ জানুয়ারি কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলার কামালপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর