,

download (1)

ঐশ্বরিয়াকে দেখে কেঁদেছিলেন অমিতাভ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বলিউড সেনসেশন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে ইনস্টাগ্রামে প্রায় এক কোটি মানুষ ‘ফলো’ করেন। আর ঐশ্বরিয়া একজনকেই ‘ফলো’ করেন।  এই একজন হচ্ছেন স্বামী অভিষেক বচ্চন।

অভিষেক সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব একটা সক্রিয় না থাকলেও তার বাবা অমিতাভ বচ্চনকে প্রায় সময়ই টুইটার-ইনস্টাগ্রামে দেখা যায় । তার অনুসারী ঐশ্বরিয়ার প্রায় তিন গুণ।

ইনস্টাগ্রামে বিগ বি-কে ফলো করেন পৌনে তিন কোটি মানুষ। কিন্তু এ বিশাল সংখ্যায় নেই পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া। এমন একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করে পুত্রবধূ আর শ্বশুরের মধ্যে শীতল সম্পর্কের ইঙ্গিত দিয়েছে ভারতের কোনো কোনো গণমাধ্যম।

তবে এই ইঙ্গিত যে সঠিক নয়, সেটি জানা গেল ঐশ্বরিয়ার শ্বাশুড়ি খোদ জয়া বচ্চনের কথায়। পরিবারের কথা বলতে গিয়ে জয়া জানান, বাড়িতে এসে সবার আগে নাকি পুত্রবধূকেই দেখতে চান বিগ বি। অথচ ইনস্টাগ্রাম বলছে ঐশ্বরিয়া শুধু তার স্বামী অভিষেককেই ফলো করেন।

জয়ার একটি সাক্ষাৎকার সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। বেশ কিছু দিন আগে ‘কফি উইথ করণ’ অনুষ্ঠানে এসে অমিতাভ-জয়া বলেছিলেন, ঐশ্বরিয়া নাকি তাদের বাড়িতে মেয়ে হয়ে এসেছেন, বউমা হিসেবে নয়।

জয়া বলেন, আমাদের মেয়ে শ্বেতার অভাবকে পূর্ণ করেছে ঐশ্বরিয়া। মাঝে মাঝে এমনও হয়েছে, ঐশ্বরিয়াকে বাড়িতে দেখে অমিতাভ চমকেও গেছেন। মনে হয়েছে যেন শ্বেতা বাড়িতে এসেছে। শ্বেতা বিয়ে করে চলে যাওয়ার পর বাড়িটা একেবারে ফাঁকা হয়ে গিয়েছিল। সেটিকেই পূরণ করেছে আমাদের পুত্রবধূ।

জয়া সেই সাক্ষাৎকারে বউমা-শ্বশুরের সম্পর্ক বোঝাতে আরও অনেক কথা বলেছিলেন। অমিতাভ যখন প্রথমবার ঐশ্বরিয়াকে কাছ থেকে দেখেছিলেন, তখন নাকি তিনি এতটাই আবেগাপ্লুত হয়ে উঠেছিলেন যে, তিনি একেবারে কেঁদে ফেলেছিলেন।

সূত্র: এনডিটিভি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর