,

subah-2201170742

কাদা-ছোড়াছু‌ড়ির পর সুবাহ মুখে এখন ভিন্ন সুর

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বছর তিনেক আগের কথা। ২০১৮ সালে মডেল ও অভিনেত্রী সুবাহ শাহ হুমায়রার একটি ভিডিও তুমুল আলোচনার জন্ম দিয়েছিল। যে ভিডিওতে তিনি ক্রিকেটার নাসির হোসেনের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের ব্যাপারটি ফাঁস করেছিলেন।

নাসিরের আলোচিত সেই ‘সাবেক প্রেমিকাকে বিয়ে করেছেন গায়ক ইলিয়াস হোসাইন। কিন্তু তাদের মধ্যে হঠাৎ করেই শুরু হয় ঝামেলা। ইলিয়াস তার দ্বিতীয় স্ত্রী করিনকে ডিভোর্স না দিয়েই বিয়ে করেন সুবাহ। এমন ঘটনা সামনে আসার পরেই দুই পক্ষ থেকেই শুরু হয় কাদা-ছোড়াছুড়ি। কখনো সুবাহ অভিযোগ করেন ইলিয়াসের নামে আবার কখনো ইলিয়াস বলেন, সুবাহ বহু পুরুষে আসক্ত ছিলো।

এসব অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগের মধ্যেই সুবাহর বাসা থেকে চলে যান ইলিয়াস। এরপর থানায় গিয়ে ইলিয়াসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ৩ জানুয়ারি মামলাটি দায়েরের পর আদালত আগামী ১৯ জানুয়ারি এর প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে মামলা চলমান অবস্থায় দুবাই উড়াল দিয়েছেন ইলিয়াস। সেখানে গিয়ে একাধিক পোস্ট দিতেও দেখা গেছে গায়ককে। ঘণিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গেছে, মাস খানেক দুবাইতে অবস্থান করবেন তিনি। দুবাই থেকে ৭ জানুয়ারি ছবিসহ একটি পোস্ট করেন ইলিয়াস। ক্যাপশনে লিখেছেন, জুম্মা মোবারক।

এদিকে ইলিয়াস দুবাই গেলেও চুপ করে নেই সুবাহ। তিনি নিয়মিত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট দিয়ে যাচ্ছেন।

গতকাল রোববার রাতে একটি স্ট্যাটাসে অভিনেত্রী সুবাহ ছবি দিয়ে ক্যাপশনে লেখেন, যে মেয়ের ফেরেশতার মতো এতো ভালো বাবা অকালে তাকে ছেড়ে কবরে চলে গেছেন! তখন ওই মেয়ে মানসিকভাবে স্ট্রং হয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে কাজ করে যাচ্ছে ফ্যামিলি আর বন্ধুদের নিয়ে ভালো ছিলো ভালো আছে। সেখানে তার সামান্য দুইদিনের উড়ে এসে জুড়ে বসা বেইমান টাইপের প্রতারক স্বামী যদি, তার জীবন থেকে চলে যায় তো ওই মেয়ে কেনো ভেঙে পড়বে?

তিনি আরো লেখেন, হ্যাঁ কষ্ট পেয়েছি কেঁদেছি শুধু নিজের উপর আফসোস করে, যে কতই না বোকা ছিলাম যে আবারো ভুল করে ভুল মানুষকে বিশ্বাস করে ঠকেছি!! ঠকে গেছি মরে তো যাইনি!! ভালোই ছিলাম ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে আরো ভালো থাকবো। যে বেইমানি করেছে যে ঠকিয়ে ধরা খেয়েছে, ভেঙে তার পরা উচিত কারণ এতো ভালোবেসে ভালো রাখার পরেও যে ভালোভাবে থাকে না বেইমানি আর প্রতারণা করেছে আমার সাথে! ওই ব্যক্তি অনুশোচনার কারনে মরে যাওয়া উচিৎ।

সুবাহ’র এমন পোস্টের পরেই নেতিবাচক মন্তব্যে ভরে যায় তার কমেন্ট সেকশন। কমেন্টে সারমর্মগুলো এমনই দাঁড়ায়- যদি এমন বুঝটাই আসছে তাহলে আগে এত কাদা ছোড়াছুড়ি কেনো হলো? আবার অনেকে এমন মন্তব্য করতেও দেখা যায়- এখন ভিন্ন সুরে কথা বলছেন এই অভিনেত্রী।

কিন্তু আসলেই তারা কি করতে চাচ্ছেন তাদের ‘জীবন নাটকে’ এখনো ব্যপারটা ধোঁয়াশায়ই রয়ে গেছে। সময়ই বলে দিবো তাদের উত্তর। এমন প্রত্যাশাই তাদের ভক্ত এবং অনুরাগীদের।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর