,

moutusi

মৌটুসী বিশ্বাসের রিয়েলিটি শো

হাওর বার্তা ডেস্কঃ দেশের গুণী অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাস বরাবরই কাজ নির্বাচনে খুঁতখুঁতে। তাই তো নিয়মিত নাটক, সিনেমা, ওয়েব সিরিজের প্রস্তাব পেলেও সব কাজে দেখা দেন না। তার কাছে অনেক কাজ করার চেয়ে একটি মানসম্মত, জীবনঘনিষ্ঠ ও শিক্ষণীয় কাজ করা শ্রেয়। তাইতো দীর্ঘ অভিনয় ক্যারিয়ার পেরিয়ে এসেও নিয়মিত অভিনয় কর্মশালা, থিয়েটার দেখা ও মাস্টার ক্লাস করছেন। এই অভিনেত্রীর মনে হয়েছে জনপ্রিয় শিশুতোষ চ্যানেল দুরন্ত টেলিভিশনের ‘বানান মানে স্পেলিং’ রিয়েলিটি শোর সঙ্গে যুক্ত হওয়া যায়। বাংলা ও ইংরেজি বানানের প্রতিযোগিতায় মেতে উঠবে সারা দেশ থেকে অডিশনের মাধ্যমে বাছাই হওয়া পঞ্চম ও ষষ্ঠ শ্রেণির ৬৪ শিক্ষার্থী। অনুষ্ঠানটির পরিচালক মনিরুল হোসেন শিপন বলেন, ‘আমরা আসলে এই রিয়েলিটি শোকে বলছি বানান বানান খেলা। কারণ, আমরা খেয়াল করেছি এখনকার শিশুরা বানানের সঠিক রীতি না জেনেই মুখস্থ করছে। এর ফলে বানান ভুলের সম্ভাবনা বাড়ছে। তাই আমরা অনেক দিন ধরেই ভাবছিলাম বানান নিয়ে একটি প্রোগ্রাম করার। সারা বিশ্বে, এমনকি আমাদের দেশে ডেইলি স্টারেও ইংরেজি বানান নিয়ে প্রোগ্রাম হয়। কিন্তু আমরা নিজেদের মাতৃভাষাকেও সমান গুরুত্ব দিতে চেয়েছি। কারণ, ইংরেজির চেয়ে বাংলা বানানের রীতি আরও জটিল।’

এই অনুষ্ঠানে যুক্ত হওয়া নিয়ে মৌটুসী বলেন, ‘আমার উপস্থাপনা শুরু ২০০০ সালে একুশে টিভির প্রথম ট্রাভেল শো ‘অ্যাডভেঞ্চার  বাংলাদেশ’-এর মধ্য দিয়ে। এটি সে সময় জনপ্রিয় হয়েছিল। এরপরও উপস্থাপনায় নিয়মিত হইনি। কারণ, মানহীন ও গৎবাঁধা কাজ করে লাভ নেই। যে কাজটি আমাকে শিল্পী হিসেবে ঋদ্ধ করবে, মানুষ হিসেবে সমাজের প্রতি দায়িত্ব পালনে সহায়ক হবে এবং ব্যক্তি হিসেবে মানসিক তৃপ্তি দেবে সেটিই করতে চাই। এবার কোমলমতি শিশুদের সঙ্গে কাটানো সময়গুলো সত্যি প্রাইসলেস। তাছাড়া এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে একটা প্রজন্ম ভালো কিছু শিখছে। সময় নিয়ে চিন্তাভাবনা করে কাজটি করেছি। দুরন্ত টিভির অনুষ্ঠান প্রধান মোহাম্মদ আলী হায়দার, পরিচালক মনিরুল হোসেন শিপন ও প্রযোজক সুমনা সিদ্দিকী ভীষণ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন। পুরো টিম এতটাই গোছানো ছিল যে, আমি কী পোশাক পরব, কীভাবে সাজলে শিশুদের আরও আপন মনে হবে সব বিষয়ে তারা নজর রেখেছেন।’ তবে মৌটুসীর কিছুটা হতাশাও আছে। তিনি বলেন, ‘অনেকে আসলে তারকাখচিত কিংবা গ্ল্যামারাস প্রোগ্রাম ছাড়া আগ্রহ পায় না। তাই এত সুন্দর একটি গঠনমূলক ও পরিকল্পিত অনুষ্ঠান করার পরও এটা মিডিয়ায় কতটা সাড়া ফেলবে জানি না। তবে এটা যেহেতু শিশুদের নিয়ে, তাই প্রতিটি ঘরের শিশু ও অভিভাবকরা উপভোগ করবেন বলে আমার বিশ্বাস।’

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর