,

samantha

পরকীয়া ও গর্ভপাতের রটনার বিরুদ্ধে আইনি পথে সামান্থা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ নাগা চৈতন্য ও সামান্থা রুথ প্রভু— এ দুই দক্ষিণ ভারতীয় তারকার ছাড়াছাড়ি হয়েছে গত মাসে। এরও আগে থেকে তাদের বিচ্ছেদ নিয়ে গুঞ্জন ছিল। এত সবের মাঝে নজর রাখে সামান্থার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ও গর্ভপাতের রটনা। এ নিয়ে আইনের পথে হাঁটলেন নায়িকা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, একাধিক ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন অভিনেত্রী। সেই চ্যানেলগুলো যারা চালান, ইতিমধ্যেই তাদের কাছে আইনি নোটিশ গেছে। সামান্থার পক্ষ থেকে নোটিশ পেয়েছেন ভেঙ্কট রাও নামক এক আইনজীবীও।

সামান্থার জনসংযোগ কর্মকর্তার দাবি, ইউটিউব চ্যানেলগুলো অভিনেত্রীর নামে ভুয়া খবর রটাচ্ছিল। জনপ্রিয়তা পাওয়ার লোভে ভুল তথ্য দিয়ে ভিডিও তৈরি করা হয়েছিল। যেখানে বলা হয়, সামান্থার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক এবং গর্ভপাত করার সিদ্ধান্তই নাগা চৈতন্যের সঙ্গে বিচ্ছেদের কারণ।

অতীতে এই ধরনের অভিযোগকে পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছিলেন সামান্থা। কিন্তু তার পরেও চর্চা থামেনি।

সামান্থা শিবিরের দাবি, চৈতন্য-সামান্থার বিচ্ছেদ ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই তার কারণ খুঁজতে উৎসাহী ছিলেন অনুরাগীরা। ‘সুমন টিভি’ নামে এক জনপ্রিয় চ্যানেলও অভিনেত্রীকে নিয়ে নানা ধরনের তত্ত্ব তৈরির প্রতিযোগিতায় শামিল হয়। অন্য দিকে, আইনজীবী ভেঙ্কট রাও কোনো তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই সামান্থার বিরুদ্ধে গর্ভপাতের অভিযোগ এনেছিলেন বলেও দাবি অভিনেত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তার।

যাবতীয় অভিযোগ নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে কিছুদিন আগে একটি বিবৃতি জারি করেছিলেন সামান্থা। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, ‘বিবাহবিচ্ছেদ খুবই কষ্টদায়ক। আমাকে সামলে ওঠার সময় দেওয়া হয়নি। অনবরত ব্যক্তিগত আক্রমণ করা হচ্ছে। কিন্তু আমি কথা দিচ্ছি, এ ধরনের কথা বা অন্য কোনো কিছুই আমাকে ভাঙতে পারবেনা।’

বর্তমানে নতুন কিছু প্রজেক্ট নিয়ে ব্যস্ত আছেন সামান্থা। বিয়ে বা বিচ্ছেদ নিয়ে আর মুখ খুলতে আগ্রহী নন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর