,

Productivity-imeg-2110020325

জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস আজ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ দারিদ্র্য আমাদের প্রধান শত্রু। দারিদ্র্য দূর করতে হলে আমাদের আত্মনির্ভরশীল হতে হবে। খাদ্য-বস্ত্রসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী আমাদেরই উৎপাদন করতে হবে।

জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস আজ। উৎপাদনশীলতা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রতি বছর ২ অক্টোবর দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে। এ প্রেক্ষাপটে উৎপাদনশীলতা দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় উৎপাদনশীলতা’।

উৎপাদনশীলতা বাড়লে শ্রমিকরা বেশি মজুরি পাবেন। মালিকরাও অধিক মুনাফা পাবেন। ভোক্তারা পাবেন সস্তায় মানসম্মত পণ্য ও সেবা। সর্বোপরি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির ফলে সরকারের আয় বাড়বে, শিল্পায়ন ত্বরান্বিত হবে। এতে কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন সহজ হবে।

দেশে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে সরকারের ১০ বছর মেয়াদি মহাপরিকল্পনা রয়েছে। এর আওতায় প্রতি বছর গড়ে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ হারে উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে বর্তমান বিশ্ব অর্থনীতি বিপর্যস্ত। এই পরিস্থিতিতে আমাদের বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি ছাড়া অন্য কোন বিকল্প নেই।

 দিবসটি উপলক্ষে আজ ‘অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় উৎপাদনশীলতা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও)। দেশে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত দপ্তর এটি। শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলা প্রশাসনের উদ্যোগেও আলোচনাসহ নানা কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। এসব কর্মসূচিতে অর্থনৈতিক উন্নয়নে উৎপাদনশীলতার গুরুত্বসহ বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর