ঢাকা ০৪:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সংসার জীবনের ২০ বছরে পা রাখলেন ওমর সানি-মৌসুমী

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১২:৫৩:৩২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০১৫
  • ২৯৬ বার

তারকা দম্পতিদের সংসার টেকে না- এমন অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করে তৃতীয় তারকা দম্পতি হিসেবে সংসার জীবনের ২০ বছরে পা রাখলেন ওমর সানি ও মৌসুমী। দীর্ঘ প্রেমের সফল অধ্যায় শেষে ১৯৯৬ সালের ২রা আগস্ট রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে ঘটা করে সংসার জীবনের যাত্রা শুরু করেছিলেন তারা। দেখতে দেখতে সেই পথচলার ১৯টি বছর সফলভাবে শেষ হয়ে ২০ বছরের মাইলফলক স্পর্শ করলো। সুখী তারকা দম্পতি হিসেবে তাদের আগে নিজেদের দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থান করে আছেন আজিম-সুজাতা এবং নাঈম-শাবনাজ। আজিমের মৃত্যু পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন ছিলেন আজিম-সুজাতা। এখনও অবিচ্ছিন্ন আছেন নাঈম-শাবনাজ। দুই কন্যা সন্তান নিয়ে তাদের সুখী সংসার। সেই পথ ধরে ওমর সানি-মৌসুমীও আজ এক পুত্র আর এক কন্যা সন্তানের পিতামাতা হিসেবে সুখী এবং গর্বিত। তাদের সংসারে শুধু সুখ আর সুখ। দুজনেই যার যার কাজ করছেন। সংসার সামলাচ্ছেন। আবার সন্তানদের ভাল-মন্দটাও দেখছেন গুরুত্ব সহকারে। শুধু স্বামী-স্ত্রী হিসেবেই নয়, বাবা-মা হিসেবেও ওমর সানি-মৌসুমী সফল একটি দৃষ্টান্তের নাম। তাদের পুত্র ফারদিন এহসান স্বাধীন মাত্র ১৭ বছর বয়সে টেলিছবি নির্মাতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে বিখ্যাত বাবা-মার নাম উজ্জ্বল করেছে। কন্যা ফাইজা ব্যস্ত পড়াশোনা নিয়ে। ওমর সানি-মৌসুমীর দাম্পত্য জীবনে অনেক চড়াই উৎরাই এসেছে। এসেছে কালবৈশাখীর ঝড়। কিন্তু প্রেমের শক্তিতে বলীয়ান এ দম্পতি থেকেছেন অবিচল। সব বাধাবিপত্তি অতিক্রম করে আজ তারা আদর্শ দম্পতি। ওমর সানি-মৌসুমীর চলচ্চিত্রে আগমন প্রায় একই সময়ে। মৌসুমী তার অভিনীত দ্বিতীয় ছবি ‘দোলা’তে প্রথম জুটি বাঁধেন ওমর সানির সঙ্গে। প্রেমের শুরুটাও এখান থেকে। ‘দোলা’ দুজনের হৃদয়েই দোলা দিয়েছিল। তারপর ‘আত্মঅহংকার’ ছবিতে এসে প্রেমের পূর্ণতা লাভ করে এবং শেষ পর্যন্ত শুভ পরিণয়। দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে ওমর সানি-মৌসুমী দুজনেই তাদের ভালবাসার সংসার টিকিয়ে রাখতে সতর্ক থেকেছেন। চেষ্টা করেছেন কোন অশুভ শক্তি যেন তাদের আলাদা করতে না পারে। নিজেদের প্রতি আস্থা আর ভালবাসায় আজ তারা ২০ বছরের সোনালি অধ্যায়ের যাত্রী। এ প্রসঙ্গে ওমর সানি-মৌসুমী দুজনেই বলেন, আমরা একে অপরকে ভালবেসে বিয়ে করেছি। সত্যিকার প্রেমে বাধাবিপত্তি থাকবেই। আমাদের পথও সুগম ছিল না। কিন্তু আমরা মহান আল্লাহর প্রতি আস্থা রেখে নিজেদের বিশ্বাসের প্রতি অবিচল ছিলাম। দুজনেই অনেক কষ্ট করেছি। সংসারে সুখের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। এমনকি ক্যারিয়ারের দিকেও তাকাইনি। আজ মহান আল্লাহর অসীম রহমত আর আমাদের বাবা-মায়ের দোয়া, শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভালবাসা এবং দুই সন্তানের নিষ্পাপ মুখ আমাদের সুখী করেছে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমরা দুজন দুজনের পাশে থাকবো এটাই আমাদের প্রতিজ্ঞা। ওমর সানি-মৌসুমীর দাম্পত্য জীবনের ২০ বছরের সূচনালগ্নে মানবজমিন পরিবারের পক্ষ থেকেও রইলো শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। কামনা, আরও কয়েকটি ২০ বছর তারা সুন্দরভাবে অতিক্রম করবেন, ভাল থাকবেন, সুখী থাকবেন, আনন্দময় থাকবেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

সংসার জীবনের ২০ বছরে পা রাখলেন ওমর সানি-মৌসুমী

আপডেট টাইম : ১২:৫৩:৩২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০১৫

তারকা দম্পতিদের সংসার টেকে না- এমন অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করে তৃতীয় তারকা দম্পতি হিসেবে সংসার জীবনের ২০ বছরে পা রাখলেন ওমর সানি ও মৌসুমী। দীর্ঘ প্রেমের সফল অধ্যায় শেষে ১৯৯৬ সালের ২রা আগস্ট রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে ঘটা করে সংসার জীবনের যাত্রা শুরু করেছিলেন তারা। দেখতে দেখতে সেই পথচলার ১৯টি বছর সফলভাবে শেষ হয়ে ২০ বছরের মাইলফলক স্পর্শ করলো। সুখী তারকা দম্পতি হিসেবে তাদের আগে নিজেদের দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থান করে আছেন আজিম-সুজাতা এবং নাঈম-শাবনাজ। আজিমের মৃত্যু পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন ছিলেন আজিম-সুজাতা। এখনও অবিচ্ছিন্ন আছেন নাঈম-শাবনাজ। দুই কন্যা সন্তান নিয়ে তাদের সুখী সংসার। সেই পথ ধরে ওমর সানি-মৌসুমীও আজ এক পুত্র আর এক কন্যা সন্তানের পিতামাতা হিসেবে সুখী এবং গর্বিত। তাদের সংসারে শুধু সুখ আর সুখ। দুজনেই যার যার কাজ করছেন। সংসার সামলাচ্ছেন। আবার সন্তানদের ভাল-মন্দটাও দেখছেন গুরুত্ব সহকারে। শুধু স্বামী-স্ত্রী হিসেবেই নয়, বাবা-মা হিসেবেও ওমর সানি-মৌসুমী সফল একটি দৃষ্টান্তের নাম। তাদের পুত্র ফারদিন এহসান স্বাধীন মাত্র ১৭ বছর বয়সে টেলিছবি নির্মাতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে বিখ্যাত বাবা-মার নাম উজ্জ্বল করেছে। কন্যা ফাইজা ব্যস্ত পড়াশোনা নিয়ে। ওমর সানি-মৌসুমীর দাম্পত্য জীবনে অনেক চড়াই উৎরাই এসেছে। এসেছে কালবৈশাখীর ঝড়। কিন্তু প্রেমের শক্তিতে বলীয়ান এ দম্পতি থেকেছেন অবিচল। সব বাধাবিপত্তি অতিক্রম করে আজ তারা আদর্শ দম্পতি। ওমর সানি-মৌসুমীর চলচ্চিত্রে আগমন প্রায় একই সময়ে। মৌসুমী তার অভিনীত দ্বিতীয় ছবি ‘দোলা’তে প্রথম জুটি বাঁধেন ওমর সানির সঙ্গে। প্রেমের শুরুটাও এখান থেকে। ‘দোলা’ দুজনের হৃদয়েই দোলা দিয়েছিল। তারপর ‘আত্মঅহংকার’ ছবিতে এসে প্রেমের পূর্ণতা লাভ করে এবং শেষ পর্যন্ত শুভ পরিণয়। দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে ওমর সানি-মৌসুমী দুজনেই তাদের ভালবাসার সংসার টিকিয়ে রাখতে সতর্ক থেকেছেন। চেষ্টা করেছেন কোন অশুভ শক্তি যেন তাদের আলাদা করতে না পারে। নিজেদের প্রতি আস্থা আর ভালবাসায় আজ তারা ২০ বছরের সোনালি অধ্যায়ের যাত্রী। এ প্রসঙ্গে ওমর সানি-মৌসুমী দুজনেই বলেন, আমরা একে অপরকে ভালবেসে বিয়ে করেছি। সত্যিকার প্রেমে বাধাবিপত্তি থাকবেই। আমাদের পথও সুগম ছিল না। কিন্তু আমরা মহান আল্লাহর প্রতি আস্থা রেখে নিজেদের বিশ্বাসের প্রতি অবিচল ছিলাম। দুজনেই অনেক কষ্ট করেছি। সংসারে সুখের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। এমনকি ক্যারিয়ারের দিকেও তাকাইনি। আজ মহান আল্লাহর অসীম রহমত আর আমাদের বাবা-মায়ের দোয়া, শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভালবাসা এবং দুই সন্তানের নিষ্পাপ মুখ আমাদের সুখী করেছে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমরা দুজন দুজনের পাশে থাকবো এটাই আমাদের প্রতিজ্ঞা। ওমর সানি-মৌসুমীর দাম্পত্য জীবনের ২০ বছরের সূচনালগ্নে মানবজমিন পরিবারের পক্ষ থেকেও রইলো শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। কামনা, আরও কয়েকটি ২০ বছর তারা সুন্দরভাবে অতিক্রম করবেন, ভাল থাকবেন, সুখী থাকবেন, আনন্দময় থাকবেন।