ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বড়লেখায় সদস্যপদে আলোচনায় যারা

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:৪৭:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬
  • ২৯৮ বার

মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী ২৮শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ভোটের দিন যত ঘনিয়ে আসছে তত প্রার্থীদের নিয়ে চুলচেরা আলোচনা-সমালোচনা পাড়া-মহল্লা, অফিস-আদালত ও হোটেলগুলোতে। রীতিমতো নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে তর্ক-বিতর্কের ঝড় চলছে। একটাই আলোচনা কে বিজয়ী হচ্ছেন জেলা পরিষদ নির্বাচনের সদস্য পদে। বড়লেখা উপজেলায় ৩ ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত হচ্ছে। যার সদস্য সংখ্যা ১৭ জন। জেলা পরিষদের ১নং ওয়ার্ড হচ্ছে নিজ বাহাদুরপুর, উত্তর শাহবাজপুর, দক্ষিণ শাহবাজপুর, বড়লেখা সদর ও পৌরসভা। ভোটারদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, এ ওয়ার্ডে আলোচনায় রয়েছেন তারা হচ্ছেন টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম মামুন ও তালা প্রতীক নিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমদ। এ দুই প্রার্থীর যে কেউ জয়ের মালা পরবেন। এখানে অন্য প্রার্থীরা হলেন বড়লেখা পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত মেয়র মরহুম আব্দুল মালিকের ছোট ভাই আব্দুল নুর (উটপাখি), সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু আহমদ হামিদুর রহমান (ঘুড়ি), সাবেক ছাত্রনেতা দেলোয়ার হোসেন (ফ্যান)। ২নং ওয়ার্ড বর্ণী, দাসেরবাজার, তালিমপুর, দক্ষিণভাগ উত্তর (কাঁঠালতলী) ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এ ওয়ার্ডে সদস্য পদের জন্য ভোটারদের মুখে জোরেসোরে যা শোনা যাচ্ছে তা যদি ঠিক থাকে তবে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ঠিকাদার শহীদুল আলম শিমুল ক্রিকেট ব্যাট প্রতীক নিয়ে যা ভোট পাবেন অন্য পাঁচ প্রার্থী মিলে তা পাবেন। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা স্বপন চক্রবর্তী (টিউবওয়েল)। অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন বিএনপি নেতা ফয়জুল হক (অটোরিকশা), লোকমান আহমদ (তালা), সেলিম উদ্দিন (ফ্যান) ও নজরুল ইসলাম (হাতী)। সুজানগর, দক্ষিণ ভাগ এবং জুড়ী উপজেলার দুটি ইউনিয়ন পশ্চিম জুড়ী ও পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন নিয়ে ৩নং ওয়ার্ড গঠিত। ভোটারের ভাস্যমতে এ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম তৈয়মুছ আলীর ছেলে পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জুবের হাসান জেবলু (তালা) ও দক্ষিণভাগ ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের ছোটভাই সাবেক ছাত্রনেতা আজিম উদ্দিন (ফ্যান)। এ দুই প্রার্থীর মধ্যে তুমুল লড়াই জমবে। এ এখানে আজিমের অনুসারীরা বিজয় ছিনিয়ে আনতে বাজিমাত। এখানে অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন সুজানগর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম (টিউবওয়েল), দক্ষিণভাগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্পাদক নেতা সুব্রত কুমার দাস (হাতী), পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির (অটোরিকশা)। এদিকে সংরক্ষিত (মহিলা) ওয়ার্ড থেকে দুজন প্রার্থী কোমর বেঁধে প্রচারণা চালাচ্ছেন। এরা হলেন উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জোবেদা ইকবাল (ফুটবল) ও সমাজসেবী ও ব্যবসায়ী আমেনা বেগম (হরিণ)। এ দুজন সমানে সমান।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

বড়লেখায় সদস্যপদে আলোচনায় যারা

আপডেট টাইম : ১০:৪৭:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬

মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী ২৮শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ভোটের দিন যত ঘনিয়ে আসছে তত প্রার্থীদের নিয়ে চুলচেরা আলোচনা-সমালোচনা পাড়া-মহল্লা, অফিস-আদালত ও হোটেলগুলোতে। রীতিমতো নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে তর্ক-বিতর্কের ঝড় চলছে। একটাই আলোচনা কে বিজয়ী হচ্ছেন জেলা পরিষদ নির্বাচনের সদস্য পদে। বড়লেখা উপজেলায় ৩ ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত হচ্ছে। যার সদস্য সংখ্যা ১৭ জন। জেলা পরিষদের ১নং ওয়ার্ড হচ্ছে নিজ বাহাদুরপুর, উত্তর শাহবাজপুর, দক্ষিণ শাহবাজপুর, বড়লেখা সদর ও পৌরসভা। ভোটারদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, এ ওয়ার্ডে আলোচনায় রয়েছেন তারা হচ্ছেন টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম মামুন ও তালা প্রতীক নিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমদ। এ দুই প্রার্থীর যে কেউ জয়ের মালা পরবেন। এখানে অন্য প্রার্থীরা হলেন বড়লেখা পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত মেয়র মরহুম আব্দুল মালিকের ছোট ভাই আব্দুল নুর (উটপাখি), সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু আহমদ হামিদুর রহমান (ঘুড়ি), সাবেক ছাত্রনেতা দেলোয়ার হোসেন (ফ্যান)। ২নং ওয়ার্ড বর্ণী, দাসেরবাজার, তালিমপুর, দক্ষিণভাগ উত্তর (কাঁঠালতলী) ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এ ওয়ার্ডে সদস্য পদের জন্য ভোটারদের মুখে জোরেসোরে যা শোনা যাচ্ছে তা যদি ঠিক থাকে তবে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ঠিকাদার শহীদুল আলম শিমুল ক্রিকেট ব্যাট প্রতীক নিয়ে যা ভোট পাবেন অন্য পাঁচ প্রার্থী মিলে তা পাবেন। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা স্বপন চক্রবর্তী (টিউবওয়েল)। অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন বিএনপি নেতা ফয়জুল হক (অটোরিকশা), লোকমান আহমদ (তালা), সেলিম উদ্দিন (ফ্যান) ও নজরুল ইসলাম (হাতী)। সুজানগর, দক্ষিণ ভাগ এবং জুড়ী উপজেলার দুটি ইউনিয়ন পশ্চিম জুড়ী ও পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন নিয়ে ৩নং ওয়ার্ড গঠিত। ভোটারের ভাস্যমতে এ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম তৈয়মুছ আলীর ছেলে পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জুবের হাসান জেবলু (তালা) ও দক্ষিণভাগ ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের ছোটভাই সাবেক ছাত্রনেতা আজিম উদ্দিন (ফ্যান)। এ দুই প্রার্থীর মধ্যে তুমুল লড়াই জমবে। এ এখানে আজিমের অনুসারীরা বিজয় ছিনিয়ে আনতে বাজিমাত। এখানে অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন সুজানগর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম (টিউবওয়েল), দক্ষিণভাগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্পাদক নেতা সুব্রত কুমার দাস (হাতী), পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির (অটোরিকশা)। এদিকে সংরক্ষিত (মহিলা) ওয়ার্ড থেকে দুজন প্রার্থী কোমর বেঁধে প্রচারণা চালাচ্ছেন। এরা হলেন উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জোবেদা ইকবাল (ফুটবল) ও সমাজসেবী ও ব্যবসায়ী আমেনা বেগম (হরিণ)। এ দুজন সমানে সমান।