ঢাকা ০২:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
মহাসত্যের সন্ধানে সালমান ফারসি (রা.) ইসরাইলে মুখোমুখি সেনা ও সরকার, বিপাকে নেতানিয়াহু বন্যায় নেত্রকোণার মদনে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত পানিবন্ধি ১ হাজার ছয়শ বিশ পরিবার মদনে প্রধান সড়ক দখল করে বাসস্ট্যান্ড, দীর্ঘ যানজটে ভোগান্তির যেনো শেষ নেই মদনে কৃষক আজিজুল ইসলামের বজ্রপাতে মৃত্য জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি আপেল মাহমুদ ও সহ-সাধারণ সম্পাদক রাহাত মদনে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ করেন ইউএনও প্রধানমন্ত্রীকে ঈদের শুভেচ্ছা নরেন্দ্র মো‌দির দুর্ভাগ্য আমাদের, ভালো খেলেও কোয়াটার ফাইনালে যেতে পারলাম না জাতীয় ঈদগাহে ঈদের নামাজ আদায় করবেন রাষ্ট্রপতি

পেঁয়াজ চুরির অপবাদে শেকলে বেঁধে নির্যাতন

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:৩৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • ১৫ বার

লক্ষ্মীপুরে পেঁয়াজ চুরির অপবাদ দিয়ে আবদুল ওহাব (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে রশি দিয়ে হাত ও পায়ে তালা লাগানো শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার সকালে সন্ত্রাসী রেড জোন সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পোদ্দার বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। একই ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবদুর রহিমসহ তার লোকজনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। এতে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী ওহাব নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার দশঘরিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজন জানান, পোদ্দারবাজারে ইউপি সদস্য আবদুর রহিমের ভাই আবুল কালামের মুদি দোকান থেকে শুক্রবার এক বস্তা পেঁয়াজ চুরি হয়। শনিবার সকালে আবদুল ওহাব পোদ্দারবাজারে এলে ব্যবসায়ী কালাম পেঁয়াজ চুরির অভিযোগ এনে তাকে আটক করেন। এরপর কালাম তার ভাই আবদুর রহিমকে খবর দেয়। পরে আবদুর রহিমসহ ১০-১৫ জন লোক এসে সড়কের পাশে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে ওহাবকে রশি দিয়ে হাত ও শিকল দিয়ে পা বাঁধে। পায়ে জড়ানো শিকলে তালা লাগানো ছিল। এ সময় তাকে মারধর করা হয়। একপর্যায়ে খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওহাবকে উদ্ধার করে স্বজনরা। তাকে বেঁধে রাখার একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ছবিতে টুপি মাথায় ওহাবকে বিমর্ষ দেখা গেছে।

থানা পুলিশ সূত্র জানায়, বিকালে ঘটনাটি জানাজানি হলে ইউপি সদস্য আবদুর রহিম ও ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা হারুনুর রশিদকে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তাদের ছেড়ে দিলেও দুজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্তে পুলিশ কাজ করছেন।

ভুক্তভোগী আবদুল ওহাব সাংবাদিকদের বলেন, পার্শ্ববর্তী পোদ্দারবাজারে ঘুরতে আসলে আবুল কালাম পেঁয়াজ চুরির অপবাদ দিয়ে আটকে আমাকে মারধর করে। পরে তার ভাই রহিম মেম্বারসহ বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে আমাকে বেঁধে নির্যাতন চালায়। আমাকে কিছু বলার সুযোগ দেওয়া হয়নি।

ইউপি সদস্য আবদুর রহিম বলেন, ওহাব পেঁয়াজ চুরি করেছে। এ জন্য তাকে মারধর করা হয়।

বশিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। বাজারের ব্যবসায়ী ও ইউপি সদস্য বিষয়টি আমাকে জানায়নি। তবে কেউ আইন হাতে তুলে নেওয়া ঠিক হয়নি।

এ ব্যাপারে বশিকপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাহবুবুর রহমান জানান, বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে এক ব্যক্তিকে মারধরের অভিযোগে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা চন্দ্রগঞ্জ থানায় রয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত চলছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

মহাসত্যের সন্ধানে সালমান ফারসি (রা.)

পেঁয়াজ চুরির অপবাদে শেকলে বেঁধে নির্যাতন

আপডেট টাইম : ১১:৩৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

লক্ষ্মীপুরে পেঁয়াজ চুরির অপবাদ দিয়ে আবদুল ওহাব (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে রশি দিয়ে হাত ও পায়ে তালা লাগানো শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার সকালে সন্ত্রাসী রেড জোন সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পোদ্দার বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। একই ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবদুর রহিমসহ তার লোকজনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। এতে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী ওহাব নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার দশঘরিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজন জানান, পোদ্দারবাজারে ইউপি সদস্য আবদুর রহিমের ভাই আবুল কালামের মুদি দোকান থেকে শুক্রবার এক বস্তা পেঁয়াজ চুরি হয়। শনিবার সকালে আবদুল ওহাব পোদ্দারবাজারে এলে ব্যবসায়ী কালাম পেঁয়াজ চুরির অভিযোগ এনে তাকে আটক করেন। এরপর কালাম তার ভাই আবদুর রহিমকে খবর দেয়। পরে আবদুর রহিমসহ ১০-১৫ জন লোক এসে সড়কের পাশে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে ওহাবকে রশি দিয়ে হাত ও শিকল দিয়ে পা বাঁধে। পায়ে জড়ানো শিকলে তালা লাগানো ছিল। এ সময় তাকে মারধর করা হয়। একপর্যায়ে খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওহাবকে উদ্ধার করে স্বজনরা। তাকে বেঁধে রাখার একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ছবিতে টুপি মাথায় ওহাবকে বিমর্ষ দেখা গেছে।

থানা পুলিশ সূত্র জানায়, বিকালে ঘটনাটি জানাজানি হলে ইউপি সদস্য আবদুর রহিম ও ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা হারুনুর রশিদকে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তাদের ছেড়ে দিলেও দুজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্তে পুলিশ কাজ করছেন।

ভুক্তভোগী আবদুল ওহাব সাংবাদিকদের বলেন, পার্শ্ববর্তী পোদ্দারবাজারে ঘুরতে আসলে আবুল কালাম পেঁয়াজ চুরির অপবাদ দিয়ে আটকে আমাকে মারধর করে। পরে তার ভাই রহিম মেম্বারসহ বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে আমাকে বেঁধে নির্যাতন চালায়। আমাকে কিছু বলার সুযোগ দেওয়া হয়নি।

ইউপি সদস্য আবদুর রহিম বলেন, ওহাব পেঁয়াজ চুরি করেছে। এ জন্য তাকে মারধর করা হয়।

বশিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। বাজারের ব্যবসায়ী ও ইউপি সদস্য বিষয়টি আমাকে জানায়নি। তবে কেউ আইন হাতে তুলে নেওয়া ঠিক হয়নি।

এ ব্যাপারে বশিকপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাহবুবুর রহমান জানান, বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে এক ব্যক্তিকে মারধরের অভিযোগে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা চন্দ্রগঞ্জ থানায় রয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত চলছে।