ঢাকা ১২:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হেলিকপ্টারে করে নববধূ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
  • ১২ বার

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে হেলিকপ্টারে করে নববধূ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টায় বংশাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে হেলিকপ্টার থেকে নববধূকে নামেন উপজেলার আজগানা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ বিন সিয়াম।

সিয়াম আজগানা ইউনিয়নের বেলতৈল গ্রামের ইটভাটা মালিক হাবিবুর রহমান হবির ছেলে। পরিবারের একমাত্র ছেলে সিয়ামের বিয়েকে স্মরণীয় করে রাখতে হেলিকপ্টারে করে নববধূ বাড়িতে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জানা গেছে, শুক্রবার বিকাল ৪টায় লতিফপুর গ্রামের আলমাস মাস্টারের একমাত্র মেয়ে আফরিন আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় সিয়ামের। বেলা আড়াইটার দিকে হেলিকপ্টারে করে লতিফপুর একতা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নামেন তিনি। বিয়ের অনুষ্ঠানে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

লতিফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেন রনি গণমাধ্যমকে বলেন, হেলিকপ্টারে বরযাত্রী আসা আমাদের এলাকায় এবারই প্রথম। বিয়ের অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেছে এলাকাবাসী।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

হেলিকপ্টারে করে নববধূ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা

আপডেট টাইম : ১০:০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে হেলিকপ্টারে করে নববধূ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টায় বংশাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে হেলিকপ্টার থেকে নববধূকে নামেন উপজেলার আজগানা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ বিন সিয়াম।

সিয়াম আজগানা ইউনিয়নের বেলতৈল গ্রামের ইটভাটা মালিক হাবিবুর রহমান হবির ছেলে। পরিবারের একমাত্র ছেলে সিয়ামের বিয়েকে স্মরণীয় করে রাখতে হেলিকপ্টারে করে নববধূ বাড়িতে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জানা গেছে, শুক্রবার বিকাল ৪টায় লতিফপুর গ্রামের আলমাস মাস্টারের একমাত্র মেয়ে আফরিন আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় সিয়ামের। বেলা আড়াইটার দিকে হেলিকপ্টারে করে লতিফপুর একতা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নামেন তিনি। বিয়ের অনুষ্ঠানে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

লতিফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেন রনি গণমাধ্যমকে বলেন, হেলিকপ্টারে বরযাত্রী আসা আমাদের এলাকায় এবারই প্রথম। বিয়ের অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেছে এলাকাবাসী।