ঢাকা ০৩:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে নেই যানজট

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:৩৩:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪
  • ১৪ বার

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বাড়লেও কোথাও কোনো যানজট নেই। দূরপাল্লার গণপরিবহনের পাশাপাশি মোটরসাইকেল ও ব্যক্তিগত যানবাহনও বেড়েছে। গণপরিবহন সংকটে খোলা ট্রাক, বাস ও পিকআপ করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছেন অনেকেই।

এদিকে, রোববার মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর গাড়ি বিকল ও মহাসড়কের কালিহাতীর ভাবলা এলাকায় ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার (৮ এপ্রিল) সকাল থেকে মহাসড়কের ঘারিন্দা, রাবনা, রসুলপুর, এলেঙ্গা, সলা, বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড়ের টোল প্লাজা ঘুরে কোথাও কোনো যানজট দেখা যায়নি।

বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল বলেন, শনিবার রাত ১২টা থেকে রোববার রাত ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতুতে গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু পারাপার হয়েছে প্রায় ২৯ হাজার ৭০০ যানবাহন। যা থেকে টোল আদায় হয়েছে প্রায় আড়াই কোটি টাকা।

পুলিশ জানায়, মহাসড়কে গত দুইদিনের তুলনায় আজ যানবাহনের চাপ অনেকটাই বেড়েছে। তবে কোথাও কোনো যানজটের সৃষ্টি হয়নি এবং মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রার জন্য প্রায় ৭ তাধিক পুলিশ সদস্য কাজ করছেন।

বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর আশরাফ বলেন, সকাল থেকেই মহাসড়কে স্বাভাবিক গতিতে পরিবহন চলাচল করছে। তবে সন্ধ্যার পর থেকে পরিবহনের চাপ মহাসড়কে বাড়তে পারে।

জেলা প্রশাসক মো. কায়ছারুল ইসলাম বলেন, ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে সরকার সমন্বিত প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় মির্জাপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড় পর্যন্ত গুরত্বপূর্ণ পয়েন্টে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ঈদের আগে ও পরে তিন দিন করে মহাসড়কের আমরা কোনো ট্রাক চলাচল করতে দিচ্ছি না। মহাসড়কে থ্রি হুইলার উঠতে দিচ্ছি না।

তিনি আরও বলেন, মহাসড়কে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটলে সেই যানবাহনগুলো অপসারণের জন্য আমরা রেকার স্ট্যান্ডবাই রেখেছি। টোল প্লাজা চালু রাখার জন্য জনবলসহ সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া সেতুর উপরে কোনো অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটলে সে বিষয়েও তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সব মিলিয়ে বলা যায় এবারের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন হবে। মানুষ স্বস্তিতে ঘরে ফিরতে পারবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে নেই যানজট

আপডেট টাইম : ১১:৩৩:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বাড়লেও কোথাও কোনো যানজট নেই। দূরপাল্লার গণপরিবহনের পাশাপাশি মোটরসাইকেল ও ব্যক্তিগত যানবাহনও বেড়েছে। গণপরিবহন সংকটে খোলা ট্রাক, বাস ও পিকআপ করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছেন অনেকেই।

এদিকে, রোববার মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর গাড়ি বিকল ও মহাসড়কের কালিহাতীর ভাবলা এলাকায় ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার (৮ এপ্রিল) সকাল থেকে মহাসড়কের ঘারিন্দা, রাবনা, রসুলপুর, এলেঙ্গা, সলা, বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড়ের টোল প্লাজা ঘুরে কোথাও কোনো যানজট দেখা যায়নি।

বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল বলেন, শনিবার রাত ১২টা থেকে রোববার রাত ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতুতে গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু পারাপার হয়েছে প্রায় ২৯ হাজার ৭০০ যানবাহন। যা থেকে টোল আদায় হয়েছে প্রায় আড়াই কোটি টাকা।

পুলিশ জানায়, মহাসড়কে গত দুইদিনের তুলনায় আজ যানবাহনের চাপ অনেকটাই বেড়েছে। তবে কোথাও কোনো যানজটের সৃষ্টি হয়নি এবং মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রার জন্য প্রায় ৭ তাধিক পুলিশ সদস্য কাজ করছেন।

বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর আশরাফ বলেন, সকাল থেকেই মহাসড়কে স্বাভাবিক গতিতে পরিবহন চলাচল করছে। তবে সন্ধ্যার পর থেকে পরিবহনের চাপ মহাসড়কে বাড়তে পারে।

জেলা প্রশাসক মো. কায়ছারুল ইসলাম বলেন, ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে সরকার সমন্বিত প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় মির্জাপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড় পর্যন্ত গুরত্বপূর্ণ পয়েন্টে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ঈদের আগে ও পরে তিন দিন করে মহাসড়কের আমরা কোনো ট্রাক চলাচল করতে দিচ্ছি না। মহাসড়কে থ্রি হুইলার উঠতে দিচ্ছি না।

তিনি আরও বলেন, মহাসড়কে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটলে সেই যানবাহনগুলো অপসারণের জন্য আমরা রেকার স্ট্যান্ডবাই রেখেছি। টোল প্লাজা চালু রাখার জন্য জনবলসহ সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া সেতুর উপরে কোনো অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটলে সে বিষয়েও তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সব মিলিয়ে বলা যায় এবারের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন হবে। মানুষ স্বস্তিতে ঘরে ফিরতে পারবে।