শীতে মিষ্টি আলু খেলে মিলবে নানা উপকার

শীতের সময় কাশি-সর্দি-জ্বরসহ নানা ধরনের অসুখ-বিসুখ লেগেই থাকে। তাই এই সময় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করা খুবই জরুরি। এছাড়াও এই মৌসুমে শরীরে উষ্ণতা প্রয়োজন হওয়ায় সবাই গরম পোশাক পরেন এবং গরম পানীয়ও গ্রহণ করেন। অনেকেই হয়তো জানেন না, মিষ্টি আলু বা রাঙা আলু শীতকালে শরীরকে কেবল উষ্ণতাই দেয় না, নানা রোগের হাত থেকে বাঁচায়। এই সময়ে মিষ্টি আলু খেলে যেসব উপকারিতা পাওয়া যায়-

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে এমন খাবার হিসেবে মিষ্টি আলু হতে পারে সহজ সমাধান। মিষ্টি আলুতে থাকা ক্যারোটিনয়েড এবং অ্যান্থোসায়ানিন নামক দুইটি উপাদান আমাদের শরীরকে ফ্রি র‌্যাডিক্যালের হাত থেকে বাঁচায় এবং সেইসঙ্গে বাড়ায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। এটি আমাদের ত্বক ও চুলের জন্যও উপকারী। পুষ্টিবিদরা বলেন, ‘মিষ্টি আলুর অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্ষমতা শুধুমাত্র এর ক্যারোটিনয়েডের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, এটি অ্যান্থোসায়ানিনের একটি বড় উৎস।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে

মিষ্টি স্বাদের বলে ডায়াবেটিস রোগীরা মিষ্টি আলু এড়িয়ে যাবেন না। মিষ্টি আলুর গ্লাসেমিক ইনডেক্স কম থাকে এবং থাকে প্রচুর ফাইবার। এর স্টার্চি কার্বোহাইড্রেট রক্ত প্রবাহে সুগারের মাত্রাও ধীর করে দেয়। আমেরিকান ডায়াবেটিস সোসাইটির তথ্য অনুসারে, ‘ডায়াবেটিসের জন্য মিষ্টি আলু এক ধরনের সুপার ফুড। এই সবজি ভিটামিন এ এবং ফাইবার সমৃদ্ধ। সেই সঙ্গে আরও রয়েছে ভিটামিন সি এবং পটাসিয়াম।’

দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়

ভিটামিন এ সমৃদ্ধ মিষ্টি আলু আমাদের চোখ ভালো রাখার ক্ষেত্রেও যথেষ্ট কার্যকরী। এই আলুতে থাকে বিটা ক্যারোটিন। এটি আমাদের চোখকে সূর্যের অতিবেগুনী আলোকরশ্মি থেকে রক্ষা করে। তাই দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে নিয়মিত মিষ্টি আলু খেতে পারেন।

হজমে সহায়ক

মিষ্টি আলু নিয়মিত খেলে হজমের সমস্যা কমে যায়। মিষ্টি আলুতে আছে মিনারেল ও ভিটামিন বি যা পেট ফাঁপা, অ্যাসিডিটি ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হজম সংক্রান্ত নানা সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের জন্য মিষ্টি আলু খুবই কার্যকরী একটি খাবার।

ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

ওজন কমাতে উপকারী একটি খাবার হতে পারে মিষ্টি আলু। এতে রয়েছে অল্প পরিমাণে ক্যালোরি এবং প্রচুর ফাইবার। যে কারণে এটি দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখলেও ওজন বৃদ্ধি করে না।

ক্যানসার প্রতিরোধে সহায়তা করে

মিষ্টি আলুতে থাকা ক্যারোটিনয়েড ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। বেগুনি মিষ্টি আলুতে অ্যান্থোসায়ানিন নামক এক ধরনের প্রাকৃতিক যৌগ থাকে যা শরীরে কোলোরেক্টাল ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়

গবেষণায় দেখা গেছে, মিষ্টি আলু শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে পারে। তাই মিষ্টি আলু খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

স্থূলতা কমায়

মিষ্টি আলু শরীরের প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে এবং চর্বি কোষগুলোর বৃদ্ধি প্রতিরোধ করে। যার ফলে এই খাবারটি ওজন কমাতে সাহায্য করে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর