,

সিলেটে পৌরসভা, উপজেলা ও ইউপি নির্বাচন স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতারা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সিলেটের বিশ্বনাথ পৌরসভা, ওসমানীনগর ও জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ এবং গোয়াইনঘাটের ৪ ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ ২ নভেম্বর।

এসব নির্বাচনে স্বতন্ত্র পরিচয়ে লড়বেন বিএনপির কয়েকজন নেতা। যদিও নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে দলটির। নির্বাচনে মোট প্রার্থী ৩৮৩ জন। ইউনিয়ন পরিষদ ছাড়া অন্য নির্বাচনগুলোয় ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে।

সিলেটের বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রথম নির্বাচন এবার। নির্বাচনে মেয়র পদে ১১ জন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৫ জন ও কাউন্সিলর পদে ৭১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

এর মধ্যে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফারুক আহমদ, উপজেলা জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ শিব্বির আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আকদ্দুছ আলী (বিদ্রোহী), মুহিবুর রহমান (স্বতন্ত্র), উপজেলা বিএনপির সভাপতি জালাল উদ্দিন (স্বতন্ত্র), যুক্তরাজ্যের ওল্ডহ্যাম বিএনপির সভাপতি প্রবাসী মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন (স্বতন্ত্র), নিউহাম বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রবাসী মুমিন খান মুন্না (স্বতন্ত্র), উপজেলা আঞ্জুমানে আল-ইসলাহ’র সভাপতি প্রবাসী তালুকদার ফয়জুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক মতিউর রহমান সুমন, যুক্তরাজ্য প্রবাসী সফিক উদ্দিন ও সমছু মিয়া রয়েছেন।

বিএনপি সরাসরি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলেও মেয়র পদে দলটির একাধিক নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় নির্বাচনে উৎসবমুখর হয়ে উঠবে বলে ভোটাররা জানিয়েছেন।

এদিকে জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ পদে প্রার্থী হয়েছেন ১৩ জন। তারা হলেন চেয়ারম্যান পদে উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আকমল হোসেন, বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আতাউর রহমান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তাদীর আহমদ মুক্তা, জমিয়তে উলামায়ের সৈয়দ তালহা আলম ও আব্বাস চৌধুরী লিটন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাদান দিয়েছেন ৫ প্রার্থী। তারা হলেন জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সূত্রধর (বীরেন্দ্র), জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন লালন, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ছালেহ আহমদ, ফুটবলার সৈয়দ তুহেল মিয়া ও বিএনপি নেতা আব্দুল মতিন লাকি। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী সুফিয়া খানম সাথী, রীনা বেগম ও সেলিনা বেগম।

ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাদানকারীরা হলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি শামিম আহমদ, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম এবং খেলাফত মজলিসের ছইদুর রহমান চৌধুরী। ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৯ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

তারা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনা মিয়া, উপজেলা যুবলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক দিলদার আলী, উপজেলা বিএনপি নেতা গয়াস মিয়া, বিএনপি নেতা জুয়েল মিয়া, দলিল লেখক আখতার হোসেন, ধারাভাষ্যকার আলী হোসেন রানা, মখলিছ মিয়া, মাওলানা মো. আবদুল বাছিত ও খন্দকার মাসুম আহমদ। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি মহিমা সুলতানা সুমি, বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি নেত্রী মুছলিমা আক্তার চৌধুরী, জানাহার বেগম ও ছানারা বেগম।

গোয়াইনঘাট উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ৩ পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ২৫৭ জন। তাদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৬ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৫১ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ১৭৪ জন প্রার্থী রয়েছেন।

গোয়াইনঘাট সদর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৯, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১০ এবং সাধারণ সদস্য পদে ৪৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে জমা দিয়েছেন সুভাষ চন্দ্র পাল ছানা, এমএ রহিম, মো. হোসাইন আহমদ, গোলাম রব্বানী সুমন, কামাল উদ্দিন, নাছির উদ্দীন, মো. মুহিবুর রহমান এবং আবুল খায়ের।

পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফুর রহমান লেবু, আওয়ামী লীগ নেতা মো. রফিকুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান হামিদুল হক ভূঁইয়া বাবুল, আব্দুল মুতলিব, শামীম আল মামুন, মোহাম্মদ আক্কাস আলী শেখ ও মুসুদুল আলম।

মধ্য জাফলং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জাতীয় পার্টি মনোনীত আব্দুর রহিম, আওয়ামী লীগ মনোনীত ফারুক আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী লোকমান হোসেন, মোহাম্মদ শাইদুর রহমান, লোকমান হোসেন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৫, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ২০ এবং সাধারণ সদস্য পদে ৫০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তাদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আব্দুছ সালাম, মওলানা মুফতি আমির আহমদ, মামুন পারভেজ, আব্দুল মুনিম মুন্সি ও আব্দুল মালিক।

তফশিল অনুযায়ী ৬ অক্টোবর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল। ১০ অক্টোবর মনোনয়ন যাচাই-বাছাই। ১৭ অক্টোবর প্রার্থিতা প্রত্যাহার। ১৮ অক্টোবর প্রতীক বরাদ্দ এবং ২ নভেম্বর ভোটগ্রহণ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর